‘ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট’- এ ভারতের জয়পুর সহ প্রাধান্য এশিয়ার দেশগুলির

0

Last Updated on

একাধিক নতুন পর্যটন স্থলকে ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইটের তকমা দিল ইউনেস্কো । রাষ্ট্রপুঞ্জের এই সংস্থা প্রতি বছর কিছু কিছু ইতিহাস প্রসিদ্ধ জায়গাকে এই তকমা দিয়ে আসছে ১৯৭২ সাল থেকে । এই বছর বিশ্বের মোট ৮টি জায়গাকে ‘ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইটে’র তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হল | তালিকায় নাম রয়েছে ‘পিঙ্ক সিটি’ জয়পুরের নামও । দেশের একটি শহর এই তকমা পাওয়াতে খুশি জয়পুর বাসী থেকে দেশবাসী প্রত্যেকেই । তালিকার বাকি জায়গাগুলি হল, বাহরিনের-

‘দিলমুন বারিয়াল মাউণ্ড’
দ্বীপের পশ্চিমে অবস্থিত এই প্রাচীন স্থাপত্যটি খ্রীষ্ট পুর্ব ২০৫০ থেকে ১৭৫০ সালের মধ্যে তৈরি হয় । মোট ১১,৭৭৪টি বেলনাকার বারিয়াল মাউণ্ড স্থিত এটিকে ইউনেস্কো এ বছর ‘হেরিটেজ সাইট’ তকমা দিয়েছে।

চিনের ‘লিয়াংঝু সিটি’
দেশের দক্ষিণ-পূর্ব উপকূলের ইয়াংজে নদীর উপত্যকায় অবস্থিত এই জায়গাটি ৩,৩০০-২,৩০০ খ্রীষ্ট পূর্বাব্দে স্থাপিত হয় । এটিকে এ বছর ‘ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইটে’র তকমা দিয়েছে ইউনেস্কো ।

ইন্দোনেশিয়ার ‘ওম্বিলিন কোল মাইন’
উন্নত মানের কয়লা উত্তোলনের জন্য বানানো এই কয়লাখনিটি ঔপনিবেশিক ডাচ সরকারের সময় তৈরি হয় উনবিংশ শতকে।

জাপানের ‘মোজু ফুরুইচি’
জাপানের ওসাকা সমভূমির উপর স্থিত এই গোরস্থানটি তৎকালীন প্রাচীন জাপানে সমাজের উচ্চস্থানীয় ব্যাক্তিবর্গের জন্য তৈরি হয়। ৩য় থেকে ৬য় খ্রীষ্টাব্দে তৈরি এটি এবারে ‘হেরিটেজ সাইট’ তকমা পেয়েছে ইউনেস্কোর কাছে ।

মায়ানমারের ‘বাগান’
মধ্য মায়ানমারের আয়েরওয়াডি নদীর উপত্যকায় অবস্থিত এই বৌদ্ধ স্থাপত্য বহুদিন ধরে বহু পর্যটকদের কাছে বেড়ানোর আদর্শ জায়গা হিসেবে সে দেশে পরিচিত। এ বছর এটি জায়গা করে নিয়েছে ‘হেরিটেজ সাইট’এ |

দক্ষিণ কোরিয়ার ‘সিওন’
দক্ষিণ এবং মধ্য কোরিয়া স্থিত এই প্রচীন স্থাপত্য পূর্বে বৌদ্ধধর্মশাস্ত্র এবং দর্শনের পাঠ দিত প্রাচীন যুগের ছাত্রদের। এই বছর এটি ‘হেরিটেজ সাইট’ তকমা পেয়েছে ইউনেস্কোর কাছে।

লাওসের ‘মেগালিথিক জার সাইট
মধ্য লাওসে স্থিত ২১০০ টি সমাধি সহ লৌহযুগ নির্মীত এই গোরস্থানটিকে হেরিটেজ সাইট তকমা দিয়েছে ইউনেস্কো এই বছর ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here