উত্তরবঙ্গে বেহাল নিকাশি, অতি বৃষ্টিতে জমা জলে প্রাণ ওষ্ঠাগত বাসিন্দাদের

0

Last Updated on

ভরা আষাঢ় মাসে সমতলে সেইভাবে বৃষ্টির দেখা মেলেনি । একদিকে পুরুলিয়া,বীরভূম,বাঁকুড়ায় শুধুমাত্র পর্যাপ্ত পরিমাণ বৃষ্টি নেই বলে চাষবাস পর্যন্ত আটকে আছে| অন্যদিকে উত্তরবঙ্গের ইসলামপুর ও রায়গঞ্জ এলাকায় ভারী বর্ষণের ফলে জলাশয়ের রূপ নিয়েছে ।

একটু বৃষ্টি হতে না হতেই রায়গঞ্জ শহরের দেবীনগর এলাকার রামকৃষ্ণপল্লী প্রায় জলমগ্ন হয়ে যায় । রাস্তার দু ধারে কোনোরকম জল নিকাশির ব্যবস্থা না থাকায় রাস্তাঘাট জলে নিমজ্জিত থাকে । দেবীনগর এলাকার এই রাস্তাটি কালীবাড়ি থেকে সোজাসুজি পূর্ব অভিমুখে ৩৪ নং জাতীয় সড়কে গিয়ে মিশেছে । স্বাভাবিকভাবেই এখানকার বাসিন্দা সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা এই রাস্তা দিয়েই যাতায়াত করেন । অতি বৃষ্টির কারণে জমা জল দেখে তাঁদের কপালে দুশ্চিন্তার ভাঁজ । এই জমা জল পেরোতে হয় স্কুল বাচ্চাদেরও । অনেক সময়ই রীস্তায় জল জমে থাকায় কোথায় গর্ত আছে তা তারা বুঝতে পারে না,ফলে দুর্ঘটনার কবলে পড়েন তারা |

জমা জলের নিত্য হেনস্থার কারণে বৃহস্পতিবার এলাকার মানুষেরা বিক্ষোভ দেখায় রায়গঞ্জ পৌরসভায় । বাসিন্দা রঞ্জিনা দেবের কথায়,রাস্তায় বালির ট্রাক যাওয়ার কারণে রাস্তা গর্ত হয়ে যায়, ফলে দুর্ঘটনা তো বটেই, স্কুল পড়ুয়া থেকে বাসিন্দাদের অসহায় অবস্থা । তাঁর মতে এখনও পর্যন্ত কোনো ড্রেন নেই,রাস্তা দিন দিন আরও নীচু হচ্ছে । বাসিন্দা গোবিন্দ রায়ও তাঁর কথায় সমস্যার কথা তুলে ধরেন, তিনি জানান- বার বার প্রশাসনকে জানিয়েও কোনো লাভ হয়নি,রাস্তার কোনো উন্নতি হয়নি। বর্ষা এলেই এই এলাকার অবস্থা শোচনীয় হয়ে ওঠে। শুধু তাই নয়,ইসলামপুর এলাকায় ১ নং ওয়ার্ডেও বৃষ্টির জমা জল ঢুকে পড়েছে গ্রামবাসীদের ঘরে। তাঁরা বিক্ষোভ দেখালেও প্রশাসনের এই বিষয়ে কোনো হেলদোল নেই বলেই তাদের অভিযোগ । সব মিলিয়ে অতি বর্ষণের কারণে উত্তরবঙ্গ সহ আশপাশের মানুষজন দুর্ভোগের সঙ্গেই জীবন কাটাচ্ছেন ।

রায়গঞ্জের ২৫ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর অসীম অধিকারীর মতে-রায়গঞ্জ দেবীনগর এলাকাটি ২৪ এবং ২৫ নং ওয়ার্ডের বর্ডার এলাকা । বহুবার রাস্তা মতামত করার জন্য এগিয়ে এসেছেন চেয়ারম্যান সহ আরও মানুষজন,মেরামত হয়েছেও, কিন্তু প্রবল বর্ষায় জল নিকাশির কোনো ব্যবস্থা না থাকায় এই এলাকাটির অবস্থা দুর্বিষহ হয়ে ওঠে । তবে পি.ডব্লিউ.ডি র ইনচার্জ , কন্ট্রাক্টর সবাই মিলে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যে খুব শীঘ্রই ওই এলাকায় ড্রেন তৈরি করা হবে এবং সেটি ২৫ নং ওয়ার্ডের ড্রেনের সাথে লিঙ্কআপ করানো হবে। কাউন্সিলর এলাকার বাসিন্দাদের আশ্বস্ত করেছেন যে খুব শীঘ্রই তারা এই রাস্তা পুনরায় মেরামতির কাজ শুরু করবেন | তাতেই ভোগান্তি কমবে বলে আশাবাদী বাসিন্দারা |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here