কোচবিহারের পঞ্চানন বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনের কার্ডে নাম নেই রাজ্যপালের,ক্ষোভ উগরে ট্যুইট জগদীপ ধনকরের

0
Governor Dhankar will not be invited in convocation of Cooch Behar university

Last Updated on

বারবার একই ছবির পুনরাবৃত্তি | রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন | অথচ আচার্যের অনুপস্থিতিতে | কারণ খুব পরিষ্কার | ডাকাই হচ্ছে না সেই সমাবর্তনে রাজ্যপাল তথা আচার্যকে | কলকাতার বুকে দুই ঐচিহ্যাশালী বিশ্ববিদ্যালয়ে রাজ্যপালকে বয়কটের দৃশ্য দেখেছে গোটা রাজ্যবাসী | তারপর তোলপাড় হয়েছে রাজ্য তথা দেশের রাজনীতি |

আরো পড়ুন :“আমার আদালত আল্লাহ,কোন মানুষ নয়,” আদালত কক্ষে বিচারককে জুতো ছুঁড়ে বলে সন্ত্রাসবাদী মুসা

তারপর রাজ্যের মন্ত্রী ও সচিবদের সঙ্গে রাজ্যপালের সৌজন্য সাক্ষাতের পর ভাবা হচ্ছিল বোধ হয় একটু একটু করে হলেও অবস্থার পরিবর্তন হয়েছে | মঙ্গলবার রাজ্যপালের করা ট্যুইটের মাধ্যমে রাজ্যপালের সেই খেদ ফুটে উঠেছে | ১৪ই ফেব্রুয়ারি কোচবিহারের পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত রাজ্যের শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়,মন্ত্রী গৌতম ঘোষ,বিধায়ক রবীন্দ্র নাথ ঘোষ,বিনয় কৃষ্ণ বর্মন সহ আরও অনেকে|

শুধু ডাকা হয়নি চ্যান্সেলরকে | এমনকি জানানোও হয়নি এই সমাবর্তনের বিষয়ে | পরবর্তাকালে সোশ্যাল মিডিয়ায় সামবর্তনের কার্ডে তার নাম না দেখে ট্যুইটার হ্যান্ডেলে তার ক্ষোভের কথা প্রকাশ করেন তিনি | প্রসঙ্গত, ২০১৯সালে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় ইউনিভার্সিটি ও কলেজ অ্যাক্ট ২০১৭ তে একটি বদলের জন্য বিল আনে | যেখানে বলা হয়েছে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আভ্যন্তরীণ যে কোন বৈঠকে কোন সিদ্ধান্ত নিতে গেলে রাজ্যপাল বা আচার্য়ের অনুমতির প্রয়োজন নেই|

আরো পড়ুন :বিজেপির হাত থেকে তৃণমূলের পার্টি অফিস উদ্ধার ঘিরে নতুন করে অশান্তি ও উত্তেজনা ভাটপাড়া

রাজ্যপাল জগদীপ ধরকরকে মাথায় রেখেই কি এই সিদ্ধান্ত নিয়ে নতুন বিলের পথে রাজ্য | কারণ একাধিক বার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নজিরবিহীনভাবে রাজ্যপাল -রাজ্যের সংঘাতের সাক্ষী হয়েছে রাজ্যবাসী | তারপর থেকেই কি রাজ্যপালের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের উপর ক্ষমতা খর্ব করে চাইছে রাজ্য সরকার ? প্রশ্ন রাজ্যবাসীর মনে |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here