‘করোনা হলে মমতা ব্যানার্জীকে জড়িয়ে ধরব’ জাতীয় সম্পাদক হওয়ার পরদিন বিতর্কিত মন্তব্য অনুপম হাজরার

controversial remarks by anupam hazra
অনুপম হাজরা ভারতীয় জনতা পার্টির জাতীয় সম্পাদক নিযুক্ত হওয়ার একদিন পরই বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন। রবিবার হাজরা বলেন যে আমি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জড়িয়ে ধরব। রবিবার বিকেলে দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলার বারুইপুরে দলীয় কর্মীদের সঙ্গে বৈঠকে যান হাজরা। এই বৈঠক শেষে মিডিয়ার সঙ্গে আলাপচারীতায় তিনি এই বিবৃতি দেন ।
এই সময় হাজরা এবং সেখানে উপস্থিত বিপুল সংখ্যক বিজেপি কর্মীরা না মাস্ক পরেছিলেন বা সামাজিক দূরত্বও অনুসরণ করা হচ্ছিল না। তিনি এবং কর্মীরা কেন মাস্ক পরেন নি এই প্রশ্নে বিজেপির জাতীয় সচিব বলেছিলেন, “আমাদের কর্মীরা কোভিড -১৯-এর চেয়ে বড় হুমকির সঙ্গে লড়াই করছেন। তারা লড়াই করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে। যেহেতু তিনি কোভিড -১৯ মহামারী দ্বারা আক্রান্ত হননি, তাই কারও ভয় নেই তাঁর । ‘
হাজরা আরও বলেছিলেন, ‘আমি যদি সংক্রামিত হই তবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জড়িয়ে ধরব। তিনি এই মহামারীর শিকারদের সঙ্গে খুব অন্যায় আচরণ করেছেন। তাদের মৃতদেহ কেরোসিন দিয়ে পোড়ানো হয়। আমরা এই জাতীয় আচরণ কুকুর বা বিড়ালদের সঙ্গেও করি না। একই সঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেস এই বিবৃতিতে হাজরাকে নিশানা করে মানসিকভাবে অপরিপক্ক বলে অভিহিত করেছে ।
টিএমসির মুখপাত্র কুনাল ঘোষ বলেছেন, এ জাতীয় বক্তব্য কেবলমাত্র পাগল এবং অপরিপক্ক ব্যক্তিই দিতে পারবেন। যে কোনও মানসিকভাবে সুস্থ্য ব্যক্তি যদি হাজরার বক্তব্য শোনে তিনি বুঝতে পারবেন তিনি কোন ধরণের ব্যক্তি। অনুপম হাজরা এর আগে টিএমসিতেই ছিলেন, তবে তিনি ২০১২ সালের লোকসভা নির্বাচনের আগে বিজেপিতে যোগ দেন। শনিবার হাজরা রাহুল সিনহার জায়গায় বিজেপির জাতীয় সচিব হয়েছেন ।