জাহাজের সহকর্মীরা করোনা আক্রান্ত,ফেসবুক পোস্টে জাপান থেকে উদ্ধারের আর্জি বাঙালি যুবকের

0
bengal cabin crew from japan seeking help to return India

Last Updated on

বিদেশে কাজ করতে গিয়েছিলেন বাংলার আর পাঁচটা ছেলের মতই উত্তর দিনাজপুরের এক যুবক | জাহাজের ক্রু হিসেবে বছরের ছয়মাস জলে ভেসে থাকাটাই যাদের জীবন | সেই কাজই করতে উত্তর দিনাজপুরের চাকুলিয়া হাতিপার বাসিন্দা বিনয় এখন রয়েছেন জাপানে | তার জাহাজ বর্তমানে জাপানের ইউকোহামা পোর্টের কাছে রয়েছে | তার করা পোস্টের মাধ্যমে পরিবার এই খবর জানতে পারে| পরিবারের দাবি,বৃহস্পতিবার বিনয় একটি ফেসবুক পোস্ট করে বলেন বর্তমানে ডায়মন্ড প্রিন্সেস নামে যে জাহাজে তিনি রয়েছেন, সেখানে ১০০জনের মধ্যে ৬১জন কমপক্ষে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত |

আরো পড়ুন :ডাক্তারি পড়ুয়াদের কুকুর বলে ক্যালকাটা মেডিক্যাল কলেজে বিতর্কে রাজ্যের মন্ত্রী ডাঃ নির্মল মাঝি

প্রথমে এক দুজন করে আক্রান্ত হচ্ছিল | কিন্ত বর্তমানে সেই জাহাজের পরিস্থিতি খুবই সংকটজনক | যেহেতু জাপানে নোঙর গেড়েছে জাহাজটি ফলে প্রশাসন সেই আক্রান্তদের নিয়ে কোথাও একটা চলে যাচ্ছে| আর তাতেই আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন বিনয়বাবুর মত অন্য বাঙালিরা | আতঙ্কিত হয়ে তাই পোস্ট করেন তাদেরকে ওই জাহাজ থেকে যেন উদ্ধার করা হয় | এই আর্জি তিনি করেন প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীর কাছে | পরিবার সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘ ১০ বছর ধরে বিদেশের বিভিন্ন জায়গায় জাহাজে কেবিন ক্রু হিসেবে কাজ করতেন বিনয় কুমার সরকার | চাকুলিয়া থানা হাতিপা এলাকার বাসিন্দা বিনয় বাবু তার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে বৃহস্পতিবার একটি ভিডিও পোস্ট করেন । সেখানে তিনি দাবি জানিয়েছেন যে জাপানের ইউকোহামা পোর্টে ডায়মন্ড প্রিন্সেস নামের একটি জাহাজে বর্তমানে তিনি কর্মরত রয়েছেন। তিনি ছাড়াও ওই জাহাজে আরো একশোর বেশি ভারতীয় বংশোদ্ভূত কেবিন ক্রুরা কাজ করেন। তাদের দাবি বেশ কয়েকদিন ধরেই করোনা ভাইরাসের কবলে পড়ছেন মানুষ ।

আরো পড়ুন :দীর্ঘ ২৭মাস পর ফেসবুক পোস্টের অপরাধে সাসপেনশনে থাকা প্রবীণ চিকিৎসক ফিরলেন কাজে,কমিশনের রিপোর্ট অধরাই তবু

প্রথমদিকে সংখ্যাটা কম থাকলেও বর্তমানে ৬১ জনের রক্তের নমুনা এই ভাইরাসের চিহ্ন মিলেছে। যদিও তার মধ্যে বাংলার মানুষ নেই বলেই জানান বিনয় সরকার | অন্যদিকে পোস্ট দেখে যথেষ্ট উদ্বিগ্ন বিনয়বাবুর দাদা শ্যামল সরকার | এদিন বিনয় বাবুর দাদা শ্যামল সরকার বলেন,দীর্ঘদিন ধরে কাজ করলেও এধরনের সমস্যায় কখনই পড়তে হয়নি তার ভাইকে | তাই পরিবার খুবই দুশ্চিন্তার মধ্যে আছেন ওই ফেসবুক পোস্টের পর | তিনি অবিলম্বে পরিবারের তরফ থেকেও ভাই সহ বাংলার ছেলেদের ফিরিয়ে আনার জন্য মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আবেদন করছেন বলে জানান তিনি |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here