রক্ষণাবেক্ষণ তলানিতে,প্রশাসনের নাকের ডগায় বিপদ্দজনক অজয় সেতুতে চলছে ভারী গাড়ির যাতায়াত

0

Last Updated on

মহানগরীর ব্যস্ততম দুই রাস্তা সংযোগকারী সেতুর হাড়মাস বেরিয়ে যাওয়া বেহাল দশা সামনে আসতেই নড়েচড়ে বসেছে পূর্ত দফতর | রাজ্য জুড়ে থাকা সেতুগুলির মধ্যে ৯৫ টির বেহাল স্বাস্থ্যে, উদ্বিগ্ন পূর্ত দফতর । ৯৫টি সেতুর মধ্যে তালিকায় রয়েছে বীরভূমের ইলামবাজারের অজয় নদের ওপর থাকা অজয় সেতুও । আর এই সেতুকে দুর্বল ঘোষণা করার পরও প্রশাসনকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে দিব্যি চলছে ভারী থেকে হালকা সমস্ত ধরনের গাড়ি ।

লাল মাটির দেশ বীরভূমের সঙ্গে বর্ধমানের যোগাযোগের অন্যতম লাইফলাইন এই অজয় সেতু । ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কের উপর দাঁড়িয়ে থাকা এই সেতু যেমন বীরভূমকে বর্ধমানের সঙ্গে যুক্ত করার পাশপাশি পশ্চিমবঙ্গের অন্যান্য জেলা ও রাজধানী কলকাতার সঙ্গে ও মেলবন্ধন ঘটায় এই সেতু |

পূর্ত দফতরের এই তালিকা প্রকাশের আগে থেকেই এই সেতুকে দুব্রল ঘোষণা করে যান নিয়ন্ত্রণের নির্দেশ দিয়েছিল প্রশাসন । বিপদ রুখতে যান চলাচলের নিষেধাজ্ঞা সঙ্গে বেঁধে দেওয়া হয়েছে উপর দিয়ে চলা যানের গতিবেগও । কারণ সেতুর বুক বরাবর চওড়া ফাটল সহজেই খালি চোখে দেখা যায় | সেতুটির উপরের রাস্তায় বিভিন্ন জায়গায় পিচ উঠে বেরিয়ে পড়েছে কঙ্কাল | ব্রিজের তলায় শ্যাওলার পুরু আস্তরণ । ভারী গাড়ি পার হলেই কেঁপে ওঠে গোটা সেতু ।

কিন্তু তা সত্ত্বেও প্রশাসনের বিজ্ঞপ্তি এবং নিষেধাজ্ঞাকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে দিনের পর দিন এই সেতুর উপর দিয়েই চলেছে বড় বড় গাড়ি । অভিযোগ স্থানীয় বাসিন্দাদের । নিষেধাজ্ঞার বিজ্ঞপ্তি খাতায় কলমে থাকলেও গাড়ি আটকানোর কোন প্রচেষ্টাই নেই পুলিশ বা প্রশাসনের বলছেন স্থানীয় মানুষেরা | একসময় বিপদের আশহ্কায় বন্ধও করে দেওয়া হয়েচিল যান চলাচল | তবে তা সাময়িক | আবার কোন অজানা কারণে শুরু হয় যায় ফের সেই ঝুঁকির পারপার |

১৯৬২ সালে কংগ্রেসের জামানায় তৈরি হওয়া এই সেতু দিনে দিনে দুর্বল হয়ে পড়ছে বলেই মত পূর্ত দফতরের আধিকারিকদেরও | ।৩৫০ মিটার দীর্ঘ ৫৭ বছরের অজয় সেতুর বেহাল দশার কথা মাথায় রেখে বানানো হচ্ছে আরেকটি সেতুও | বলছেন আধিকারিকেরা | কিন্তু প্রশ্ন উঠছে অজয় সেতুর সঠিক রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে হওয়া সেই বেহাল দশা কিছুদিন পর হবেনা তো সেই সেতু তৈরি হওয়ার পর ?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here