অনিচ্ছাকৃত খুনের মামলা নয় কেন আধিকারিকের বিরুদ্ধে,নেল্লোরে মহিলা কর্মচারী প্রহারে প্রশ্ন সোশ্যাল মিডিয়ায়

0
Question on beating of female employee in Nellore on social media

Last Updated on

দশ ঘন্টা আগের একটা ভিডিও | পোস্ট করার পরই ভাইরাল হয়ে পড়ে | দক্ষিণ ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশ ট্যুরিজম বিভাগের ডেপুটি ডিরেক্টরের অধঃস্তন মহিলা কর্মীচারীর উপর প্রহারের চিত্র ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় | ভিডিওটিতে দেখা যায় ভাস্কর নামের জনৈক ওই আধিকারিক হাতে লোহার রড নিয়ে মাটিতে ফেলে নির্বিচারে মারতে থাকছেন ওই মহিলাকে |

আরো পড়ুন :রফির গানে,নিজের ছন্দে দেশাত্মবোধের পাঠ হায়দ্রাবাদের পুলিশ প্রশিক্ষকের

অপরাধ ঠিক কী ছিল ও ই মহিলা কর্মচারীর ? অপরাধ ছিল,উচ্চ পদাধিকারী ওই ডিরেক্টর মাস্ক ছাড়াই ঘুরছিলেন অফিসের ভিতর | তাকে মাস্ক পড়তে অনুরোধ করেছিলেন ওই অধঃস্তন কর্মচারী | তা থেকেই ক্ষোভের উদ্রেক |

দিগ্বিদিক শুন্য হয়ে শুরু হয় প্রহার | দেখেই নিন্দার রোল ওঠে সোশ্যাল মিডিয়ায়| কড়া শাস্তির দাবি করেন সকলে | সাড়া দেন জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন রেখা শর্মাও | পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হয় | ঘন্টা দুয়েক পরে তাকে গ্রেফতারও করা হয় |

ভারতীয় দন্ডবিধির ৩৫৪ধারা ও ৩৫৫ধারায় অভিযোগ দায়ের করে তাকে গ্রেফতার করে নেল্লোর পুলিশ | কিন্তু জনরোষ প্রশমিত হয়নি তাতেও | কেউ কেউ বলছেন হাতে লোহার রড নয় ছিল চাকুও | মহিলার দেহে তিন-চারবার তার আঘাতের ছবিও স্পষ্ট |

আরো পড়ুন :চিনের খবর চাইনিজেই সম্প্রচার শুরু প্রসার ভারতীর,খবর চালু তিব্বতের জন্যেও,নিমেষে ভাইরাল প্রসার ভারতীর ট্যুইট

তবে কেন ওই ডেপুটি ডিরেক্টরের বিরুদ্ধে কেন খুনের মামলা বা অনিচ্ছাকৃত খুনের মামলা রুজু করা হল না ? তার পদের মাহাত্ম্যেই কী এই রেহাই ? প্রশ্ন করছেন কেউ কেউ | গ্রেফতারের পর কোভিড ও মেডিক্যাল টেস্টের পর তাকে বিচারবিভাগীয় হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here