ভোটপ্রচারের শেষলগ্নেও চলল মোদি-মমতা তরজা,নিশানায় বিজেপি প্রার্থী ও নেতার গাড়িও

0

Last Updated on

বৃহস্পতিবার বাংলায় ভোটপ্রচারের শেষ দিনেও অব্যাহত রইল মোদি-মমতা ভোট তরজা| বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার পরপর যে বাকযুদ্ধ শুরু হয়েছিল,যুযুধান দুই পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে তা বেশ খানিকটা স্তিমিত হলেও দুই দলীয় প্রধান একে অপরকে ভোটের ময়দানে বিঁধতে ভুল করলেননা| সুদূর উত্তরপ্রদেশের মৌ-তে সভা করে বাংলার তৃণমূল শাসককে নিন্দা করেছেন বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি| সেই জনসভা থেকে বাংলার মানুষকে তিনি প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, যে স্থানে বিদ্যাসাগরের মূর্তি লাগানো ছিল,সেখানেই পঞ্চ ধাতু দিয়ে গড়া মূর্তি স্থাপন করবে বিজেপি| এমনকি অমিত শাহের রোড শো তে তৃণমূলের তরফে পূর্বপরিকল্পিত ভাবে যে অশান্তি সৃষ্টি করা হয়েছিল,তাও একবার মনে করিয়ে দিলেন নরেন্দ্র মোদি| অন্যদিকে এদিনই তিনি দমদমে সভা করে যাওয়ার পর নাগেরবাজারের কাছে ভাঙচুর করা হয় বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের গাড়ি| সঙ্গে ছিলেন দমদমে বিজেপির সাংসদ প্রার্থী শমীক ভট্টাচার্যও| তৃণমূলের বেশ কিছু সমর্থক গাড়িগুলির ওপর আক্রমণ করে| তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথার সুরেই সমর্থকেরা বলতে থাকেন,বিজেপি নেতার গাড়িতে কালো ব্যাগে টাকা নিয়ে যাচ্ছেন তাঁরা|এই টাকা অসাধু কাজ করতেই কাউকে তাঁরা দেবেন বলে অনুমান তৃণমূল সমর্থকদের| বেশ কিছুক্ষণ ধরে নাগেরবাজার চত্বরে একটি বাড়িতে মিচিং করছিলেন এই দুই নেতা| অভিযোগ,সেখানেই টাকার লেনদেন চলছিল বলে সন্দেহ হয় এদের| এরপরই গাড়ির ওপর চড়াও বেশ কিছু তৃণমূল সমর্থক| আর সেই থেকেই ধুন্ধুমার নাগেরবাজার চত্বরে| পুলিশ লাঠিচার্জের মাধ্যমে সেই জমায়েতকে ছত্রভঙ্গ করে| একদিকে মূর্তি বিতর্ক মিটতে না মিটতেই বিজেপির প্রার্থী ও বিজেপির প্রথম সারির নেতাদের ওপর হওয়া হামলা কি ভালোভাবে নেবেন সাধারণ মানুষ? ভোটবাক্সে তা আদৌ কোন প্রভাব ফেলবে কিনা তা জানতে অবশ্য অপেক্ষা করতে হবে ২৩শে মে পর্যন্ত|

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here