পুজোয় গেরুয়া ছোঁয়া,বদলায় শ্লীলতাহানীর অভিযোগ,নির্যাতিতার স্বেচ্ছামৃত্যুর আর্জি নীরব প্রশাসনের কাছে

0

Last Updated on

পুজো কমিটির হাত বদল | তাই সদস্যের স্ত্রীর উপর পাশবিক অত্যাচার | সেই অত্যাচারের অভিযোগ বারংবার করেও হয়নি কোন সুরাহা | তাই স্বেচ্ছামৃত্যুর আবেদন নির্যাতিতার | বিপরীত মেরুর রাজনৈতিক প্রতিনিধিকে দিয়ে পুজো উদ্বোধনের পরেই পুজোর ও ক্লাব কমিটির সদস্যের স্ত্রীকে শ্লীলতাহানি, ধর্ষণের চেষ্টা । উদ্যোক্তাদের বেদম প্রহার । থানায় অভিযোগ দায়ের হলেও পুলিশ কোন পদক্ষেপ না নেওয়ায় এবার স্বেচ্ছামৃত্যুর আবেদন নিয়ে জেলা পুলিশ সুপারের দ্বারস্থ হলেন নির্যাতিতা । এই অভিযোগ অন্য কোন প্রতিবেশী রাজ্যের নয় | তৃণমূল কংগ্রেসের শাসনাধীন পশ্চিমবঙ্গের ঘটনা |

আরও পড়ুন : দশমীর রাতেই শ্লীলতাহানির অভিযোগ জ্যান্ত দুর্গার

চন্দ্রকোনা রোডের অপর্ণা পল্লী সার্বজনীন দুর্গোৎসব কমিটির উদ্বোধক এবার ছিলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি তথা মেদিনীপুরের সাংসদ দিলীপ ঘোষ, উনার হেমরম সহ বিজেপি নেতৃত্ব। | আর তাতেই গোঁসা শাসকদলের স্থানীয় মাতব্বরদের | তাই পুজো মিটতেই শাস্তি স্বরপ প্রতিমা বিসর্জনের পরের দিনই পুজো কমিটির সহ সম্পাদকের বাড়িতে গিয়ে চড়াও হয় এলাকার তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতী | শারীরিক নির্যাতনের পাশাপাশি মানসিক অত্যাচারের অভিযোগও ওঠে সেদিন ওই ৭ দুষ্কৃতীর বিরুদ্ধে | ঘরে তখন ক্লাব কমিটির ওই সদস্য ছিলেন না | সেই সুযোগের সদ্ব্যবহার করে ওই দুষ্কৃতীরা | নির্যাতিতার জামা-কাপড় ছিঁড়ে শ্লীলতাহানির মত অভিযোগ উঠলেও পুলিশের ভূমিকায় নিরাশ নির্যাতিতা | ঘটনার পর অভিযোগ দায়ের করা হয় চন্দ্রকোনা রোড বিট হাউস পুলিশ স্টেশনে। নির্যাতিতার গোপন জবানবন্দী নেওয়া হয় ১৫ই অক্টোবর | তারপরেও অভিযুক্তদের নাধরায় কার্যত ভেঙে পড়েছেন ওই নির্যাতিতা | আত্মহত্যা করা ছাড়া আর কোন পথ খুঁজে পাচ্ছেন না তিনি | রাইজিং বেঙ্গলরে ক্যামেরার সামনে এক্সক্লুসিভলি দেওয়া সাক্ষাতকারে নির্যাতিতার গলায় ফুটে উঠছিল সেই অসহায়তারই সুর |

প্রসঙ্গত তৃণমূল কংগ্রেস শাসনে আসার পর থেকে ওই ক্লাব ও পুজোর ছিল তাদেরই হাতে | যে সকল দুষ্কৃতীদের নাম এই ঘটনায় জড়িয়েছে তারা প্রত্যেকেই শাসক দলের সঙ্গে প্রত্যক্ষ ভাবেই জড়িত | ক্লাবের এবারের সম্পাদকের অভিযোগ,এলাকাবাসী আগের পুজো ও ক্লাব কমিটির সদস্যদের অত্যাচারে অতীষ্ঠ হয়ে উঠেছিল বলেই ছয় মাস আগে কমিটি ভেঙে নতুন কমিটি গড়া হয় |কোন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে তারা সরাসরি যুক্ত নন বলেও দাবি তাঁর | উদ্বোধনে দিলীপ বাবুকে ডাকা হয়েছে ওই এলাকার সাংসদ রূপে | এর সঙ্গে ক্লাব রাজনীতির কোন ছোঁয়াই নেই বলেও দাবি করেন নতুন কমিটির সম্পাদক|

আরও পড়ুন : জিয়াগঞ্জে খুনের ঘটনায় সিবিআই তদন্তের দাবী দিলীপের

গোটা ঘটনায় তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে কোন প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায় নি | প্রশ্ন উঠছে,যেখানে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্বচ্ছ প্রশাসন গড়ে ও দিদিকে বলোর মধ্যে দিয়ে দুর্নীতি অপরাধ মুক্ত সমাজ গড়তে চাইছেন,সেখানে তারই দলের পৃষ্ঠপোষকের অকাজ ও তার অধীনস্থ পুলিশের সাঁট বেঁধে চুপ করে থাকার খবর কি জানেন না তিনি ? নির্যাতিতার এই আর্তির
দিক তাকান মাননীয়া,চায় এলাকাবাসী |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here