শাসক দলের অন্দরেই কাটমানি ইস্যুতে সংঘাত দুই গোষ্ঠীর,বোমাবাজি,বিক্ষোভ থানায়

0

Last Updated on

তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দে উত্তপ্ত বীরভূমের মল্লারপুর থছানার কোর্ট গ্রামের পশ্চিম পাড়া এলাকা | সরকারি প্রকল্পের টাকা হাতানোর অভিযোগ তুলল তৃণমূলেরই আরেক পক্ষ | ঝিকড্ডা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রাক্তন প্রধান নাসিমুদ্দিন শেখ বর্তমানে ঝিকড্ডা গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য । তার বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে আসে তারই দলের নেতা সানোয়ার শেখ ও জহিরউদ্দিন শেখ | তাদের অভিযোগ, পঞ্চায়েত প্রধান থাকাকালীন ইন্দ্রাবাস যোজনার প্রায় ৫০ টিরও বেশি বাড়ির টাকা আত্মসাৎ করেছেন তকালীন প্রধান নাসিমুদ্দিন । এতেই এই দুই নেতার অনুগামীরা নিজেদের মধ্যে গোষ্ঠী কোন্দলে জড়িয়ে পড়ে | বুধবার রাতে একে কেন্দ্র করে এলাকায় চলে ব্যাপক বোমাবাজি।

মল্লারপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে গোটা এলাকায় চিরুনি তল্লাশি করে উদ্ধার করেন বেশ কয়েকটি তাজা বোমা । সেই বোমা-গুলি নিষ্ক্রিয়ও করে দেওয়া হয় । বোমাবাজির সঙ্গে যুক্ত থাকার ঘটনায় নাসিমুদ্দিন শেখের ৬ জন সমর্থককে গ্রেফতার করে পুলিশ । পরে গভীর রাতে তল্লাশি চালিয়ে গ্রেফতার করা হয় শেখ সানোয়ার গোষ্ঠীর একজন সমর্থককে ।

সানোয়ার গোষ্ঠীর এই সমর্থকের গ্রেফতারের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে থানা সংলগ্ন মল্লারপুর সাঁইথিয়া যাওয়ার রাস্তা অবরোধ করে সানোয়ার গোষ্ঠীর তৃণমূল সমর্থকরা | যদিও আধঘন্টা পর সেই অবরোধ পুলিশি হস্তক্ষেপে উঠে যায় |

অবরোধকারীদের বক্তব্য, অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে তারা সেই অবরোধ করেছিলেন | নাসিমউদ্দিন শেখের সমর্থকর বোমাবাজি করে । অথচ গভীর রাতে তল্লাশি চালিয়ে তাদের এক সমর্থককে গ্রেফতার করে পুলিশ |

কাটমানি ইস্যুতে বিরোধীদের পাশাপাশি দলের অন্দরেও যে ক্ষোভের সৃষ্টি করেছে তারই বহিঃপ্রকাশ এই ঘটনা | দলের অভ্যন্তরে লভ্যাংশ পাওয়া আর না পাওয়া গোষ্ঠীর মধ্যে থে্কে সৃষ্টি হওয়া কলহ শেষ পর্যন্ত প্রতিফলিত হল বিক্ষোভে| শাসকের মধ্যেও প্রভাবশালী গোষ্ঠীর অঙ্গলুহেলনেই কি তবে চল প্রশাসন,এই ঘটনা তুলে দিল এমনই সব প্রশ্ন | কাদের নিয়ে দল করেছেন বীরভূম নেতৃত্ব ? এতদিন সাধারণের আত্মসা করা কথা কেনই বা চেপে রইলেন অন্য পক্ষ ? প্রশ্ন সাধারণ মানুষের |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here