পশ্চিমবঙ্গে করোনা ভাইরাসে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে রাজনৈতিক চাপানউতোর তুঙ্গে

0
Political tension between TMC and BJP over Corona virus death toll in West Bengal

Last Updated on

করোনা ভাইরাস নিয়ে দেশব্যাপী সঙ্কটের পরিস্থিতিতেও পশ্চিমবঙ্গের অবস্থা নিয়ে রাজনৈতিক চাপানউতোর তুঙ্গে। রাজ্যে এই মারাত্মক ভাইরাসজনিত মৃত্যুর বিষয়টি নিয়ে ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিজেপির মধ্যে জারি বাকযুদ্ধ। দুটি দলই সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে একে অপরের সমালোচনা করে চলেছে। বিজেপি তথ্যপ্রযুক্তি সেলের সভাপতি অমিত মালভ্য মমতা সরকারের বিরুদ্ধে তথ্য গোপন করার অভিযোগ আনেন। এর প্রতিক্রিয়া জানিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে তাকে ভুয়ো খবর ছড়িয়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে মাস্টারমাইন্ড বলে অভিহিত করা হয়। তৃণমূলের বক্তব্য, মিথ্যে খবর প্রচারে যে ব্যক্তি পিএইচডি করেছে তার তথ্যের সত্যতা নিয়ে টুইট করা উচিত নয়। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অমিত মালভ্যর নিন্দা করে বলেন যে এইরকম কঠিন সময়ে আমাদের উচিত ‘সস্তা রাজনীতি’ থেকে দূরে থাকা ।

আরো পড়ুন :করোনা আতঙ্ক, বেঙ্গালুরুতে বাতিল হল সংঘের সমাবেশ

পশ্চিমবঙ্গে গত চব্বিশ ঘণ্টায় চারজন মারা গেছেন। তবে বেসরকারী সূত্রের খবর, সংক্রমণের কারণে এ পর্যন্ত ১০ জন মারা গেছেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সোমবার বলেন যে রাজ্যে এখন পর্যন্ত মোট ৬১ টি করোনা সংক্রমণের ঘটনা সামনে এসেছে। এর মধ্যে ৫৫ টি সাতটি পরিবারের। এর বাইরে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন যে রবিবার ৩০০০ পিপিই (ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম) সরবরাহ করেছিল কেন্দ্র। তিনি নিজে ২.২৭ লক্ষ পিপিইয়ের ব্যবস্থা করেন ।

অমিত মালভ্য সোমবার একের পর এক বেশ কয়েকটি টুইট করেছেন। তিনি অভিযোগ করেন যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার করোনার তথ্য গোপন করছেন। তিনি টুইট করেছেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কি লুকিয়ে রেখেছেন? ২, ৩, ও ৫ এপ্রিল বাংলার সরকার কোনও মেডিকেল বুলেটিন জারি করেনি। আশ্চর্যের বিষয়, ৪ঠা এপ্রিল প্রকাশিত বুলেটিনে কোভিড -১৯-এ মারা যাওয়ার কোনো খবর নেই। প্রসঙ্গত মমতা প্রশাসন কোভিড -১৯ থেকে মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধান করার জন্য একটি কমিটিকে নির্দেশ দিয়েছে।

মালভ্য লিখেছেন, ‘বাংলায় হাসপাতাল প্রশাসন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের চাপের মুখে কাজ করছে। কোভিড -১৯ এর মামলা তদন্ত না করার জন্য তাদের উপর চাপ রয়েছে। চিকিৎসকদের করোনা ভাইরাসের কারণে মারা যাওয়া রোগীদের ডেথ সার্টিফিকেটে মৃত্যুর কারণ হিসাবে করোনা ভাইরাস উল্লেখ না করার জন্য বলা হয়েছে ।

আরো পড়ুন :চার কংগ্রেস বিধায়কের ইস্তফা গ্রহণ গুজরাত বিধানসভা স্পীকারের,রাজ্যসভা নির্বাচনের আগে ঝটকা কংগ্রেসে

এর পাল্টা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, ‘একটি রাজনৈতিক দলের আইটি সেল পশ্চিমবঙ্গের স্বাস্থ্য বিভাগের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে ব্যস্ত। আমাদের চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীরা এই রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য অত্যন্ত কঠোর পরিশ্রম করছেন। সস্তা রাজনীতির জন্য সময় এ নয়। কেন্দ্রীয় সরকার যে কোনও সহায়তা করে নি তার উল্লেখ আমরা করি নি। তিনি আরও বলেন, “ওরা প্রদীপ জ্বালানো এবং বাজি পোড়ানো নিয়ে ব্যস্ত, কিন্তু আমরা এরকম নই।” কোভিড -১৯ এর রোডম্যাপ প্রস্তুত করতে রাজ্য সরকারকে সহায়তা করার জন্য একটি বিশ্বমানের উপদেষ্টা বোর্ড গঠন করা হয়েছে। এতে নোবেল বিজয়ী অভিজিৎ ব্যানার্জিও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here