জ্বলছে ডায়মণ্ডহারবার, প্রাণ সংশয়ে ঘর ছাড়ছেন নহাজারির বহু মানুষ

0

Last Updated on

বিগত ৪৮ ঘন্টায় দক্ষিণ ২৪পরগনার ডায়মণ্ডহারবার লোকসভা কেন্দ্রের বিষ্ণুপুর থানার অন্তর্গত নহাজারি গ্রাম পঞ্চায়েতের বহু মানুষ ঘর ছেড়েছেন| সেসব ছবি সোশ্যালি ভাইরাল হয়ে পৌঁছয় রাইজিং বেঙ্গলের হাতে| ছবিতে দেখা গিয়েছে বাইকে চেপে শিশু ও মহিলাদের নিরাপদ জায়গায় নিয়ে যাচ্ছেন গ্রামের পুরুষেরা| কেন তাঁরা তাঁদের ভিটে ছাড়ছেন? গ্রামবাসীদের কথায়, শাসকের অত্যাচারে ভিটে দোকান ভেঙে চুরমার| দেখা নেই প্রশাসনের রক্ষাকর্তাদের| বাইরে বেরোলে হতে পারে প্রাণ সংশয়| মাইকে নাকি দেওয়া হচ্ছে ঘর থেকে না বেরোনোর নিদান| তাই ১৯-এর নির্বাচনের আগেই তাঁরা গ্রাম ছাড়ছেন এখনই| শাসক তৃণমূলের অধীনে গ্রাম পঞ্চায়েতগুলিতে আধিপত্য সংখ্যালঘুদের| তাই আশঙ্কা বড় ধরনের কোন বিপদের| ভাঙচুরের ঘটনায় নাম উঠে আসছে পঞ্চায়েত প্রধান শামিমা শেখ ও তার স্বামী রামজান শেখের| খাগরামুড়ি ও বাগাখালীর বেশিরভাগ দোকানপাট ভাঙচুরের পরই গোটা এলাকা রয়েছে থমথমে| যদিও দু-একটি জাতীয় সংবাদমাধ্যম ছাড়া দুদিন ধরে চলা এই সংঘর্ষের খবর এবং তাঁকে ঘিরে গ্রামবাসীদের বিপন্নতার এ ছবি দেখা যায়নি রাজ্যের কোন মেইনস্ট্রিম মিডিয়াতে| সেক্ষেত্রে অবশ্য গ্রামবাসীদের অভিযোগ, শাসক আশ্রিত ওই সব দুষ্কৃতীরা সংবাদমাধ্যমকে ওই সব অঞ্চলে ঢুকতে বাধা দিচ্ছে| এমনকি সংঘর্ষের সময় দমকল ও পুলিশকে বিবিরহাট মোড়ের কাছেই আটকে দেওয়া হয়| ঘটনার তিন ঘন্টা পরে পুলিশ ও দমকল ঢোকে এলাকায়| এখানে আটকে দেওয়া হয় মিডিয়াকেও| কারা আছেন এই সংঘর্ষে প্রতক্ষ্যভাবে? এবার আরও মারাত্মক অভিযোগ করেন এলাকার মানুষ| অভিযোগ যারা এই সংঘর্ষের শাসকদলের সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত তারা আদতেই এখানকার বাসিন্দা নন| কুলতলি,ক্যানিং,বাসন্তী,ভাঙ্গর এলাকার কুখ্যাত দুষ্কৃতীদের আনা হয়েছে শুধু এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে। এমনকি প্রশাসনের সহায়তায় তাদের নামও উঠে গিয়েছে ভোটার লিস্টে| দুদিন ধরে চলা এই গন্ডগোলের পিছনে যাদের সক্রিয় ভূমিকা রয়েছে বলে দাবি গ্রামবাসীদের|

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here