জেলায় জেলায় ‘দলছুট’ নেতাদের গোঁসা ভাঙাতে তৎপর তৃণমূল

0

Last Updated on

বীরভূম: লোকসভার নির্বাচনী ফলাফলের অন্তর্তদন্ত করতে তৃণমূল সুপ্রিমো খোদ নিজের বাড়িতেই একটি বৈঠক ডেকেছিলেন তা সকলের জানা| কিন্তু মুখে না বললেও,সেখানে তাঁর পুরোনো একদা অনুগত সৈনিকদের দলে ফেরানোর বার্তা যে তিনি দিয়েছেন, সেকথা পরিষ্কার পুরসভার মেয়র তথা প্রথম সারির তৃণমূল নেতা ফিরহাদ হাকিমের বক্তব্যে| প্রাক্তন মেয়র তথা দলের প্রিয় কাননকে ফোন করার দায়িত্ব ছিল তাঁর ওপরেই|সূত্রের খবর তাতে তেমন সাড়া পাননি বর্তমান মেয়র| তবে দাদা অনুব্রত মন্ডলের ডাক অগ্রাহয় করলেন না বীরভূমের এক সময়ের ডাকসাইটে তৃণমূল নেতা কাজল শেখ| রবিবার তাঁকে ডেকে পাঠান বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মন্ডল|বেশ কিছুক্ষণ রুদ্ধদ্বার বৈঠকও হয় তাঁদের মধ্যে| প্রসঙ্গত শেষ লোকসভা নির্বাচনে বীরভূম জেলার দুটি আসনে তৃণমূল কংগ্রেস জয়লাভ করলেও ভোট বিধানসভার নিরিখে অনেকটাই কমে এসেছে । কী কারণে তৃণমূল কংগ্রেসের এই ভোট কমল তা বিশ্লেষণে কিছু নেতার অপদার্থতার কথাই উঠে এসেছে দলীয় পর্যায়ের মিটিং-এ বলে সূত্রের খবর| একদা তৃণমূল কংগ্রেসের দুর্গ হিসেবে পরিচিত ছিল বোলপুর লোকসভা কেন্দ্রে সেই কারণেই ভোটের হার কমে গিয়েছে বলে দাবি স্থানীয় নেতা-কর্মীদের| তবে কেউ কেউ মনে করেছেন তৃণমূলের এই ভোট কমে যাওয়ার অন্যতম কারণ তাঁদের দলীয় কোন্দল । এই দলীয় কোন্দলের জেরেই বোলপুর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা শেখ কাজল প্রত্যক্ষভাবে এই লোকসভা ভোটে ময়দানে নামেননি| যার কারণে তৃণমূল কংগ্রেসের ভোট কমেছে বলে মনে করেন রাজ্য তৃণমূল নেতৃত্বের একাংশ।

জেলা সভাপতির সঙ্গে বৈঠক শেষে বেরিয়ে এসে শেখ কাজল সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন| ঠিক কী বিষয়ে এ বৈঠক তা খোলোসা করে না বললেও তিনি আবারও সক্রিয়ভাবে দলের জন্য ময়দানে নামবেন তা জানান কাজল| রাজনীতি বা দল কোনোটাই ছাড়েননি,তাই ফিরে আসা কথাটার কোন মানেই নেই তাঁর কাছে| মুখে যাই বলুন সত্যিই কি শেখ কাজল বা কলকাতার শোভেন চট্টোপাধ্যায়েরা তৃণমূলের মূলস্রোতে ফিরে আসবেন? সে প্রশ্নের উত্তর দিতে পারে শুধু সময়ই|

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here