স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে হিন্দুত্ববাদীদের আক্রমণ করে পোস্ট বাংলার সিপিআইএমের !

0

Last Updated on

ভারতের স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে রাজ্যের সিপিআইএমের ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে একটি বার্তা প্রকাশ করা হয় | হ্যাশট্যাগ ইন্ডিপেন্ডেন্সডে২০১৯,ইন্ডিপেন্ডেন্সডে,আরএসএস,বিজেপি | উপরে লেখা রয়েছে দেশদ্রোহের খতিয়ান | মূল ট্যুইটে লেখা নেতাজি ও INA-র সংগ্রাম সম্পর্কে:

বিনায়ক দামোদর সাভারকরের নেতৃত্বে হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলি ভারতীয়দের বিরুদ্ধে ব্রিটিশ যুদ্ধোন্মাদনার সাথে সহযোগিতার রাস্তা বেছে নেয় | দেশের বিভিন্ন জায়গায় তারা ব্রিটিশ সৈন্যবাহিনীর জন্য hindu recruitment camp সংঘটিত করে | ভাইসরয়ের ডিফেন্স কমিটির দুজন বিশিষ্ট হিন্দুত্ববাদী নেতা কালিকর ও যমুনাদাস মেহেতার উপস্থিতি ছিল | একদম শেষে লেখা দেশদ্রোহের খতিয়ান |

প্রশ্ন উঠছে বাংলার সিপিআইএমের এই পোস্টের মাধ্যমে ঠিক কি বলতে চেয়েছেন? স্বাধীনতার প্রাক্কালে যেখানে ভারতীয় ও বাঙালি হিসেবে গৌরবাজ্জ্বল বহু অধ্যায় জনসাধারণের সামনে তুলে ধরা যেত,সেখানে রাজনীতিকে হাতিয়ার করে এই পোস্ট করে তাঁদের ভাবনা-চিন্তার দৈন্যতাই কি আবার তুলে ধরলেন না রাজ্যের বামেদের প্রধান শরিক সিরিআইএম ?

লোকসভা ভোটের পর কার্যত অস্তিত্ব সংকটে ভোগা দলটির থেকে রাস্তায় নেমে কোন প্রতিবাদ বা মানুষের হয়ে কথা বলার প্রয়াস চোখে পড়েনি তেমন | বাংলায় ও দেশে অভিন্ন লাইনে সম্মত হননি কেন্দ্রীয় ও রজ্য নেতৃত্ব | একদিকে কংগ্রেসের হাত ধরে বিজেপিকে চাপে ফেলা,অন্যদিকে বিরোধী আসনে থাকা কংগ্রেসকে রাজ্য ভিত্তিতে বিরোধীতা করা| এই ভিন্ন কর্মসূচিতে যখন প্রশ্ন উঠছে খোদ দলের ভিতর,তখন নিজের ঘর না সামলে ভারতীয়েদের কাছে একটি বিশেষ দিনে হিন্দুত্ববাদীদের সমালোচনা করতে গিয়ে যে স্বাধীনতা দিবসের ভাবাবেগকেই কোথাও আঘাত করে বসলেন না তো রাজ্য সিপি‌আইএমের নেতারা ? প্রশ্ন করছেন কেউ কেউ |

কেউ কেউ আবার বলছেন দলটির দ্বিচারিতা স্পষ্ট কাশ্মীর নিয়ে তাদের সমালোচনা আবার অন্যদিকে হংকংয়ের প্রতি চিনের আগ্রাসী নীতি নিয়ে মুখে কুলুপ | এই দলের কাছ থেকে স্বাধীনতার মানে হিন্দুত্ববাদীদের গালি দেওয়া তাও বলছেন কেউ কেউ | অনেকের মতে স্বাধীনতা বা দেশ সম্পর্কে একাত্মতা গড়ে না ওঠারই কথা তথাকথিত বামপন্থীদের | কারণ যাদের আদর্শ থেকে দর্শন সবটাই বিদেশের দ্বারা প্রভাবিত তারা কিভাবে বুঝবেন দেশের স্বাধীনতার মানে | তবে যাই হোক,এই ধরনের পোস্ট স্বাধীনতার দিনে তাদেরকেই দেশদ্রোহী তকমা দেবে কিনা তা অবশ্য সময় বলবে |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here