গরমের অস্বস্তি এড়াতে সকালেই বুথে বুথে ভোটারদের দীর্ঘ লাইন

0

Last Updated on

গত দুদিন ধরেই শহর কলকাতা ও পাশ্ববর্তী জেলাগুলিতে আর্দ্রতা জনিত গরমের দাপটে নাজেহাল সাধারণ মানুষ| তীব্র অস্বস্তি এড়াতে সাধারণ মানুষ সকালেই ভোটের লাইনে দাঁড়িয়ে পড়েন| এই দীর্ঘ লাইনের ভোটচিত্রটা বারাসাত ও ডায়মণ্ডহারবার লোকসভার বিভিন্ন বুথে ধরা পড়েছে| ভোটদানে ব্যাপক উৎসাহের ছবি ধরা পড়েছে ভাঙরে| ভাঙরের পাওয়ার গ্রিড এলাকার টোনা মাছি ভাঙা বুথে সাধারণ মানুষের ভি ড় ছিল সকাল থেকেই চোখে পড়ার মত। ক্যামেরায় উঠে এসেছে ইট পেতে লাইন রাখার ছবিও। ভাঙরের পোলের হাট ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের সামনেও একই ছবি। সকাল সাতটায় ভোট গ্রহণ শুরু হওয়ার কথা থাকলেও ভোর পাঁচটা থেকে পুরুষ এবং মহিলারা ভোটের লাইনে দাঁড়িয় পড়েন। অসহ্য গরমের হাত থেকে বাঁচতে সকাল সকাল ভোট দেবার চিন্তা ভোটারদের মনে। একই ছবি ধরা পড়ল বারাসাত লোকসভা কেন্দ্রের একাধিক বুথে| বারাসাতের অশ্বিনীপল্লী হাইস্কুলে ৫ টি বুথে প্রায় ৫০০০ ভোটার রয়েছেন। সেখানে ভোর পাঁচটা থেকে ছিল ভোটারদের দীর্ঘ লাইন । অশোকনগর বিধানসভার নয়াসমাজ আদর্শ জি এস এফপি স্কুলেও সকাল সকাল লম্বা লাইন দিয়ে ভোটারদের আগ্রহ ছিল চোখে পড়ার মত| বুথ নম্বর ১০১/১৭১| বারুইপুরেও ভোট শুরুর অনেক আগেই বুথে লাইন ভোটারদের লম্বা লাইন চোখে পড়েছে| ভোর হতে না হতেই ভোটের দীর্ঘ লাইন নজর পড়ল হাবরা-অশোকনগর এলাকায় । অশান্তি এড়াতে ক্যানিংয়ের বিভিন্ন বুথে মানুষও সকাল সকাল ভোট দিতে আসেন| সাীধারণ মানুষই নন| প্রার্থীরাও সকালকেই বেছে নিলেন ভওটদানের সময় হিসেবে| বারাসতের তৃণমূল প্রার্থী কাকলি ঘোষ দস্তিদার সকাল ৭-২০ মিনিটে ডিগবেড়িয়া অবৈতনিক প্রথমিক বিদ্যালয়ে ভোট দিতে আসেন । সকাল বেলায় নিজের বুথ বাসন্তীর ১০ নম্বর কুমরোখালি এফ পি স্কুলে ভোট দিলেন জয়নগর লোকসভা কেন্দ্রের আর এস পি প্রার্থী তথা রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী সুভাষ নস্কর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here