“গণতন্ত্রের কথা তৃণমূলকে মানায় না,” বললেন দার্জিলিঙের সাংসদ রাজু বিস্ত

1

Last Updated on

যে রাজ্যে গণতন্ত্রের এমনই হাল যে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর প্রতিনিধিরা ঘরে ফিরতে পারেনা সেইখানকার শাসক দলের আর যাই হোক গণতন্ত্র নিয়ে কথা বলা উচিত নয় | এমনই আক্রমণাত্মক ভাষায় বাংলার শাক তৃণমূল কংগ্রেসকে নিশানা করলেন বিজেপি সাংসদ রাজু বিস্ত | দুর্গাপুরের লোকসভা পরবর্তী চিন্তন বৈঠকে যোগ দিতে এসে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর গোর্খাল্যান্ড লেখাকে সমর্থন করে আরও বলেন, রাজ্যের মু্খ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও গোর্খাল্যান্ড লিখে সাক্ষর করেন , কেন তখন কোন বিতর্ক হয়না , স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লিখলেই দোষ কেন ? জিটিএ থেকে সব কিছুতেই গোর্খা কথটা আছে বলে আরও দাবি করেন বিজেপি এই সাংসদ |

বিতর্কের সূত্রপাত সাংসদকে লেখা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের একটি চিঠি থেকে শুরু | দার্জিলিঙের সাংসদ গোর্খা ও লাদাখের লোকেদের দিল্লিতে সুরক্ষার আবেদন করেছিলেন | উত্তর-পূর্ব ভারতের জন্য যে বিশেষ রেজিমেন্ট রয়েছে তাদেরকেই যেন সুরক্ষায় মোতায়েন করা হয়, সাংসদের এই আবেদন মেনে তাঁকে যে চিঠি দিয়েছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তাতে তিনি দার্জিলিঙকে ‘গোর্খাল্যান্ড’ বলে উল্লেখ করেন | আর সেই থেকেই বিতর্কের শুরু |

প্রসঙ্গত বিজেপি গোর্খাল্যান্ড ইস্যুকে সামনে রেখেই এবারও সেখানে জয়লাভ করেছে বলে অভিযোগ তৃণমূল নেতৃত্বের | বিমল সমর্থিত পৌরপ্রতিনিধিদের বিজেপি যোগ দেওয়ার পরই ক্ষমতার জোরে পৌরসভা বাঁচাতে তৃণমূল প্রশাসক বসিয়ে দিয়েছে বলে এদিন অভিযোগ করেন দার্জিলিংয়ের সাংসদ রাজু বিস্ত | কাশ্মীর প্রসঙ্গে হালে মুখ্যমন্ত্রীর কেন্দ্রী{ সরকারের সমালোচনার পর দার্জিলিংয়ের অবস্থা নিয়ে মুখ খোলেন সেখানকার সাংসদ |

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here