‘কাটমানি ‘ ইস্যুতে এবার জনগণের টাকা ফেরাল তৃণমূলের বুথ সভাপতি !

0

Last Updated on

যতদিন এগোচ্ছে ততই যেন কাটমানি ইস্যুতে নাস্তানাবুদ হয়ে যাচ্ছেন শাসক দলের নেতারা | এতদিন পর্যন্ত অভিযোগ| তাকে ঘিরে ঘেরাও | নেতাদের কোন অংশে কাটমানির কথা স্বীকার করে নেওয়া | এসব অনেক কিছুরই সাক্ষী ছিল রাজ্যবাসী | কোথাও আবার সেই কাটমানি ফেরতের অঙ্গীকারে মুচলেখাও দিতে দেখা গিয়েছিল তৃণমূলের বুথ স্তরের নেতাকে | কিন্তু এবার তার চেয়েও কয়েক কদম এগিয়ে ঘটনার সাক্ষী থাকলেন বীরভূম বাসী | সেখানে কাটমানির টাকা ফেরত দেওয়ার প্রক্রিয়া নাকি শুরু করলেন তৃণমূলের বুথ সভাপতি | শতাধিক গ্রামবাসীর চাপে নাকি তিনি হাতে হাতে ১৬০০ টাকা করে তুলে দিলেন|

মঙ্গলবার সকালে সিউড়ি ২নং ব্লকের কোমা গ্রামপঞ্চায়েতের চাতরা গ্রামে তৃণমূলের নেতার কাছ থেকে কাটমানি আদায় করে উচ্ছাসে ভেসেছে গোটা গ্রাম । ১৪১ জন মানুষ আদায় করেছেন আট মাস আগে একশো দিনের কাজে গ্রামে নর্দমা সংস্কারের মজুরি । এদিন টাকা হাতে নিয়ে গ্রামের খুশি মাল, আরতি মাল,যাদব মন্ডল, সুবোধ বাগদিরা জানান, কাজ কবে করেছেন তা মনে নেই তবে টাকা পাওয়ায় তারা বেজায় খুশি | এই টাকা আগে চাইতে গেলে তাদেরকে হুমকি দিতেন বুথ সভাপতি ত্রিলোচন মুখার্জি | ১০০দিনের শ্রমিকদের অভিযোগ, তাদের সব টাকা নেতারা ব্যাংক থেকে তুলে নিজের কব্জায় নিয়ে নিতেন | তাদের হাতে ভিক্ষার ২০০-৫০০ দিয়ে বাকি টাকাটা তারা পকেটে পুড়তেন বলেও অভিযোগ করেন তারা | তাদের কাছে শেষ খবর আসে , নর্দমা সংস্কারের কাজে দু মাস আগে এসেছিল প্রায় ২ লক্ষ ৪১ হাজার টাকা । কিন্তু কাজ হয়ে গেলেও তার কিছুই পাচ্ছিলেন না তারা | অদ্ভুদ ব্যবস্থা চলত এখানে | ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টগুলি এদের নামে থাকলেও তা রক্ষণাবেক্ষণ করতেন নেতারা | ফলে কখন টাকা পড়ছে বা কত টাকাই বা পড়ছে তা যতক্ষণ না পর্যন্ত নেতারা তাদের জানাতেন ওই গ্রামবাসীদের পক্ষে তা জানা সম্ভব হোত না | টাকা এলে তাঁরা নাকি বাড়ি বাড়ি গিয়এ খবর দিয়ে আসত | সেই টাকা নিজেদের ব্যাঙ্কে চালান দিয়ে হাতে নামমাত্র টাকা ঘরিয়ে দিত নেতারা | জানাচ্ছেন এলাকারই যুবক |

অবশেষে গ্রামবাসীরা একজোট হয়ে বিক্ষোভে সামিল হতে এদিন প্রত্যেকের হাতে ১৬০০ টাকা করে ফেরত দেয় ওই তৃণমূল নেতা। তৃণমূল নেতাকে এব্যাপারে জিজ্ঞাসা করার জন্য তার বাড়িতে যাওয়া বাড়ির লোকেরা বলে সে নেই। ফোন করলেও পাওয়া যায় নি। পরিস্কার বোঝা গেছে তৃণমূল নেতা গা ঢাকা দিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here