ইসলামপুরে বিজেপির যুব নেতার উপর চড়াও হওয়ার অভিযোগ তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীর বিরুদ্ধে

0
Complaints against of TMC attacking a BJP worker at Islampur

Last Updated on

রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ তাদের দলীয় নেতৃত্বের উপর শাসকের আঘাত করার কথা বলেছিলেন। ঠিক তার পরে নিজের সাংসদ এলাকায় ঢুকতে বাধাপ্রাপ্ত হন সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। রাজ্যে করোনা সংকটে পাশাপাশি একটু একটু করে হলেও বাড়ছে রাজনৈতিক উত্তাপ। মাঠে ময়দানে সমর্থকদের মধ্যে যার প্রতিফলনও পড়ছে যত্রতত্র। ইসলামপুরে বিজেপির এক কর্মীর উপর হামলা চালানোর অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। ইসলামপুর থানা এলাকার দারিভিটে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়ালো ।

আরো পড়ুন :পিএম কেয়ার তহবিল বিতর্কে সোনিয়া গান্ধীর মুশকিল বাড়ালো, কর্ণাটকের পর বিহারে দায়ের মামলা

ঘটনার পর ওই বিজেপির কর্মীকে ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালে গুরুতর অবস্থায় ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার বিবরণে উৎপল মজুমদার নামে এক ব্যক্তির অভিযোগ, সম্প্রতি রাজু হালদার নামে বিজেপির এক যুব নেতাকে মারধর করে তৃণমূল কর্মীরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে তার মা পৌঁছে ওই নেতাকে উদ্ধার করেন। সঙ্গে স্থানীয় যুবকেরাও ছিলেন। চিকিৎসার জন্য শিলিগুড়ির একটি বেসরকারি হাসপাতালে তারা তাকে ভর্তি করে। ঘটনার পর ইসলামপুর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয় দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। অভিযোগ এরপরই ওই বিজেপি কর্মীকে কেন বাঁচানো হলো তার জন্য শুক্রবার রাতে তৃণমূল দুষ্কৃতীরা চড়াও হয় বিজেপি কর্মীদের উপর ।

আরো পড়ুন :করোনা মহামারীর আবহে রাজনীতি তুঙ্গে, উদ্ধবের বয়ানের পাল্টা জবাব রেলমন্ত্রীর

থানাতে দুবার অভিযোগ জানাতে এসেও সেই অভিযোগ নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ তাঁর। এই ঘটনার পর বিরোধীপক্ষের হুঁশিয়ারিতে কার্যত ঘরবন্দি হয়ে পড়েছেন তারা। ইসলামপুর টাউন মন্ডলের বিজেপি সভাপতি সন্দীপ ভট্টাচার্য জানান, বিজেপি কর্মীদের ওপর পরিকল্পিতভাবে এটি একটি আক্রমণের ঘটনা । দুষ্কৃতীদের গ্রেপ্তার না করা হলে এবং এর বিচার না পেলে তারা আন্দোলনের পথেই যাবে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here