কমিশনের নির্দেশে সরল রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব, কমল ভোটপ্রচারের সময়সীমাও

0

Last Updated on

রাইজিং বেঙ্গলের খবরেই শিলমোহর| রাইজিং বেঙ্গলই আওয়াজ তুলেছিল মূর্তি ভাঙার নিরপেক্ষ তদন্তের| জানতে চেয়েছিল এত বড় ঘটনার সময় কী করছিল কলকাতা পুলিশ? কী বা করছিল কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ? শাসক-বিরোধী তরজাতে কোথাও প্রকৃত অপরাধীকে আড়াল করা হচ্ছেনা তো? এই সব প্রশ্নের উত্তর বোধ হয় রাজ্যবাসী পেয়ে গেল বুধবার রাতেই| নির্বাচন কমিশনের তরফে নির্বাচনী প্রক্রিয়ার থেকে রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব অত্রি ভট্টাচার্যকে সরিয়ে দেওয়ার নির্দেশ এল| রাজ্যের মুখ্যসচিব মলয় দে-র অধীনে আপাতত থাকছে এই দফতর| আর একটি সিদ্ধান্তের কথাও কমিশন জানিয়েছে এক সঙ্গে| যা কিনা ইতিমধ্যেই বিরোধীদের কাছে সমালোচনার মুখে ফেলেছে নির্বাচন কমিশনকে| শুধুমাত্র বাংলার জন্য সপ্তম দফা ভোট-প্রচারের সময়সীমা একদিন কমিয়ে ১৭ মের পরিবর্তে ১৬ই মে রাত ১০টা করেছে কমিশন| কমিশনের সিদ্ধান্তকে ইতিমধ্যেই পক্ষপাতদুষ্ট বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়| যদিও বাংলার আইন-শৃঙ্খলার অবনতি ঘটিয়ে এই অবস্থায় বাংলাকে পৌঁছে দেওয়ার জন্য মুখ্যমন্ত্রীকেই দুষছেন রাজ্যের বামপন্থীরা| কংগ্রেস বলছে রাজনৈতিক দলগুলির সঙ্গে আগাম আলোচনার মধ্যে দিয়ে নেওয়া যেত এই সিদ্ধান্ত| অন্যদিকে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বের বক্তব্য,বাংলায় শাসন নেই তা বারবার দরবার করেছিলেন কমিশনের কাছে| সেই কথাই প্রমাণিত হয়েছে মঙ্গলবার অমিত শাহের রোড শো তে গোলমালের পর| অনুমতি থাকা সত্ত্বেও পরিকল্পিতভাবে হামলা করেছে শাসক দলের অনুগামীরা সে অভিযোগ দিল্লিতে বসে করেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সাধারণ সভাপতি অমিত শাহ নিজেই| এরপরও কি কমিশনের এই নির্দেশকে শুধু পক্ষপাতদুষ্ট বলে প্রশাসনিক কর্তা হিসেবে নিজের দায় এড়াতে পারেন মমতা, উঠছে প্রশ্ন|

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here