বিজেপি করার অপরাধে গ্রামে হামলার অভিযোগ শাসক দলের বিরুদ্ধে , রেহাই মিললনা মহিলা-শিশুর

0

Last Updated on

লোকসভা ভোটের পর বারবার হিংসার জন্য খবরের শিরোনামে বীরভূম উঠে এলেও মাঝে কয়েকদিন চুপচাপই ছিল এই জেলা | বুধবার রাত থেকে আবারও রাজনৈতিক সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠল বীরভূমের কোমা গ্রাম পঞ্চায়েতের গাঙটে গ্রাম | তৃণমূলের মিছিল শেষে বিজেপি কর্মীদের বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল সেখানে |

রাজ্যে ভোটের ফলাফলের পর রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বিজেপির ঘাঁটি আগের চেয়ে শক্তপোক্ত হয়েছে বলে মত রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের । আর তাতেই বেশ কিছু গ্রাম পঞ্চায়েতের মত বীরভূমের কোমা গ্রাম পঞ্চায়েতেরও ৭টি আসনের মধ্যে প্রধান ও ৫ জন সদস্য ইতিমধ্যে বিজেপির ছাউনির তলায় । স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বের অভিযোগ ,কোমা গ্রাম পঞ্চায়েতের গাঙটে গ্রামে বুধবার তৃণমূলের মিছিল ফেরত ৪০০-৫০০ জন লাঠি হাতে বিজেপি কর্মীদের বাড়িতে চড়াও হয় । ছিঁড়ে ফেলা হয় বিজেপির পতাকা । শুধু বাড়ি ভাঙচুর ও মারধরই নয় , তৃণমূলের অত্যাচারের হাত থেকে রেহাই মেলেনি সে গ্রামের শিশু এবং মহিলারাও । ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছনোর আগেই এই ভহচুর মারধরের ঘটনা চলতে থাকে | যদিও গ্রামের বাসিন্দা চম্পা বৈদ্য জানান তার ছেলে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতীক ঘাসফুল মুছে দেওয়ার রাগেই তাঁর উপর চড়াও হয় শাসক আশ্রিত দুষ্কৃতীরা |

গ্রামবাসীদের ক্ষোভ পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত থেকেও দর্শকের ভূমিকা পালন করেছেন | এমনটাই দাবি আহত বিজেপি কর্মীদেরও ।

ঘটনার পরে তৃণমূল কংগ্রেস আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে বিজেপি কর্মীরা সিউড়ি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here