অ্যান্টার্কটিকাতে সাদা থেকে সবুজ বরফের আস্তরণ, চিন্তিত বৈজ্ঞানিকরা

0
White to green ice cover at Antarctica, concerned scientists

Last Updated on

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব পুরো বিশ্বে দৃশ্যমান । অ্যান্টার্কটিকাও এ থেকে আলাদা নয় , যেখানে তুষারশুভ্র পাহাড় তাদের রঙ পরিবর্তন করতে শুরু করেছে। অ্যান্টার্কটিকার সবুজ বরফের পাহাড় এখন পরিলক্ষিত হচ্ছে । বরফ পাহাড় দ্রুত তাদের রঙ পরিবর্তন করেছে। অ্যান্টার্কটিকার সাদা বরফে ভরা পাহাড় দেখে যে কারও মন মন্ত্রমুগ্ধ হবে। তবে এখন এই পাহাড়গুলিকে সবুজ হয়ে ওঠার প্রক্রিয়া অবাক করার মতো। বিশ্বজুড়ে বিজ্ঞানীরা এই অস্বাভাবিক কার্যকলাপ নিয়ে চিন্তিত ।

আরো পড়ুন :আমাজনের মাছ ধরা পড়লো মণিপুরের খালে, উদ্বিগ্ন বিশেষজ্ঞরা

বিজ্ঞানীরা বলেছেন যে জলবায়ু পরিবর্তন পুরো বিশ্বকে আঘাত করছে। এটির প্রভাব অ্যান্টার্কটিকায়ও দেখা যায়। অ্যান্টার্কটিকার পাহাড়ের রঙ পরিবর্তনের পেছনের কারণ পরিবেশের পরিবর্তন। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বরফের রঙ সাদা থেকে সবুজ হয়ে যাচ্ছে। এই পরিবর্তনটি যে কোনো স্থান থেকে তোলা ছবিতেও এটি স্পষ্টভাবে দেখা যাচ্ছে ।

বিজ্ঞানীদের মতে শৈবাল পর্বতগুলিকে সাদা থেকে সবুজ করে দিয়েছে। এই শৈবাল দীর্ঘদিন ধরে অ্যান্টার্কটিকায় উপস্থিত ছিল। বিজ্ঞানীরা বলেন যে সেখানে শৈবালের উপস্থিতি বেড়েছে, যার কারণে পাহাড়ের বরফের রঙ সাদা থেকে সবুজ হয়ে গেছে। ব্রিটিশ এক্সপ্লোরার আর্নেস্ট শ্যাকেলটন এ সম্পর্কে তথ্য দিয়েছেন ।

বিগত দু বছরের প্রাপ্ত তথ্য বিশ্লেষণ করে এই পরিবর্তন কে মান্যতা দেওয়া হয়েছে। ইউরোপীয় স্পেস এজেন্সি সেন্ডিনেল -২ স্যাটেলাইটের মাধ্যমে গত দুই বছর ধরে তথ্য সংগ্রহ করেছে। এতে অ্যান্টার্কটিকার উপরিভাগ যথাযথভাবে বিশ্লেষণ করা হয়েছিল ।

কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় এবং ব্রিটিশ অ্যান্টার্কটিকা সমীক্ষা একসঙ্গে একটি মানচিত্র তৈরি করেছে। এই মানচিত্রটি শৈবালের দ্রুত বৃদ্ধিকেই দায়ী করেছে । বিশেষ করে অ্যান্টার্কটিকা উপকূলে এর পরিমাণ আরও বেশি পাওয়া গেছে। এর কারণ কার্বন নিঃসরণ উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে ।

সবুজ রঙের সঙ্গে লাল এবং কমলা রঙের শেত্তলা দেখা যাচ্ছে বিজ্ঞানীদের বক্তব্য শেত্তলাগুলি কোথায় বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং ভবিষ্যতে তাদের দ্রুত বাড়ার সুযোগ রয়েছে কিনা তা তারা তদন্ত করা হচ্ছে । শেত্তলাগুলির বিশেষত্ব হ’ল এগুলি বায়ুমণ্ডল থেকে কার্বন ডাই অক্সাইড গ্রহণ করে। বিজ্ঞানীরা বলছেন যে এর অর্থ এই যে যে এই অঞ্চলে কার্বন নিঃসরণ বেড়েছে ।

আরো পড়ুন :লন্ডনে নিলামে উঠলো ১৩.৫ কেজি ওজনের চাঁদের টুকরো, প্রারম্ভিক মূল্য ১৯ কোটি টাকা

বিজ্ঞানীদের মতে, এই অঞ্চলে যুক্তরাজ্যের পেট্রোল গাড়ি ভ্রমণের কারণে কার্বন নিঃসরণ উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বেড়েছে। বিজ্ঞানীরা কেবল সবুজই নয় লাল এবং কমলা শেত্তলাগুলি নিয়েও গবেষণা করছেন। যদিও এই শেত্তলা সব স্থানে দৃশ্যমান নয় ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here