১০০০০হাজার শিশুর মধ্যে ১৭০টি শিশু হাঁপানীজনিত শ্বাসকষ্টে ভুগছে

0

Last Updated on

যানবাহনের দূষিত ধোঁয়া শিশুদের হাঁপানীর অন্যতম বড় কারণ গোটা বিশ্ব জুড়ে|সারা বিশ্বের ১৯২ দেশের ১২৫টি বড় শহরগুলিতে করা ল্যানসেট সমীক্ষা অন্ততঃ সেকথাই বলছে|আর তা মাথা ব্যাথার কারণ হয়ে উঠেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা হু-র|পরিসংখ্যান বলছে,প্রতি ১০০০০হাজার শিশুর মধ্যে ১৭০টি শিশু হাঁপানীজনিত শ্বাসকষ্টে ভুগছে শুধুমাত্র যান-নির্গত দূষিত নাইট্রোজেন-ডাই-অক্সাইডের কারণে|পরিবেশের ওপর সমীক্ষা চালানো ল্যানসেট প্লানিটারি হেল্থ জার্নালটি তাদের এই আশঙ্কার কথা প্রথম প্রকাশ করে ২০১৫সালে|প্রতি ১০জন শিশুর মধ্যে অন্ততঃ একজনের যান-নির্গত দূষিত ধোঁয়ার মাধ্যমে হাঁপানীতে আক্রান্ত হওযার উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়|আর এই সমীক্ষার ওপর ভিত্তি করেই হু-কে বাতাসে ক্ষতিকারক নাইট্রোজেন-ডাই অক্সাইড(No2)এর পরিমাণের উর্ধসীমা পরিবর্তনের সুপারিশ করা হয়|উন্নত ও উন্নয়নশীল,উভয় দেশেই এর কুপ্রভাব দেখা গিয়েছে|শহুরে সভ্যতার প্রসারের সঙ্গে সঙ্গে এই রোগেরও প্রসার ঘটছে|জর্জ ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটির সুসান অ্যানেনবর্গের মতে,পরিবেশে মেশা যানবাহনের দূষিত ধোঁয়ার মাত্র সংক্রান্ত হু-র যে গাইডলাইন অবিলম্বে তা পরিবর্তিত হওয়া প্রয়োজন|
এই ধরনের দূষণে হাঁপানীজনিত শিশুরোগের হার সবচেয়ে বেশি কুয়েতে(১০০০০ শিশুর মধ্যে ৫৫০জন শিশু হাঁপানীতে আক্রান্ত),এরপর সংযুক্ত আরব আমিরশাহী (১০০০০ শিশুর মধ্যে ৪৬০জন শিশু হাঁপানীতে আক্রান্ত) এবং তারপরই রয়েছে কানাডা(১০০০০ শিশুর মধ্যে ৪৫০জন শিশু হাঁপানীতে আক্রান্ত)|যদিও সবদেশের মধ্যে চিনে এই বায়ুদূষণের জেরে আক্রান্ত হাঁপানী শিশুর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি বলে জানাচ্ছে এই সমীক্ষা|কারণ শিশু-সংখ্যার বিচারে চিন বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্থানাধীকারী এবং No2 দূষণে এদেশ তৃতীয় স্থানে রয়েছে|
ভারতে বায়ুদূষণের জেরে হাঁপানিজনিত অসুখেভুগছে প্রায় সাড়ে তিন লক্ষ শিশু|যদিও বায়ুতে ক্ষতিকারক No2 গ্যাসের পরিমাণের নিরীখেভারতের স্থান ৫৮বলে উল্লেখ ল্যানসেট প্লানিটারি হেল্থের সর্বশেষ জার্নালে|সমীক্ষকদের মতে,ভারতে অন্যান্য দূষিত বায়ুকণা বিশেষতঃ PM2.5 এর হার বিশ্বের মধ্যে সর্বাধিক|অথচ ক্ষতিকারক NO2 গ্যাসের বায়ুতে উপস্থিতির হার,২০১০-১২ এর পরিসংখ্যান অনুযায়ী,ভারতে ইউরোপ ও মার্কিন দেশগুলির থেকে অনেক কম|সেই কারণেই ভারত অপেক্ষাকৃত
সুবিধাজনক অবস্থায় এক্ষেত্রে আছে বলে ল্যানসেট সমীক্ষায় উল্লেখ|

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here