আন্দোলনকারী চিকিৎসকদের গলায় মুখ্যমন্ত্রীর ভিন্ন সুর, উঠছে না আন্দোলন

0

Last Updated on

নিবার জিবি মিটিং হওয়ার কথা ছিল এনআরএসের ডাক্তারদের | আন্দোলন কোন পথে এগোবে,কীভাবে তারা চলবে সেখানেই ঠিক হওয়ার কথা থাকলেও তা নির্ধারিত সময় হতে পারেনি| আন্দোলনরত ডাক্তারদের বেশ কিছু বন্ধু না আসায় তাঁরা পারেননি মিটিং করতে| যা গভীর রাতে করবেন বলে জানালেন তাঁরা | বেশ কয়েকজন সামনে এলেন | প্রতীক্ষারত সাংবাদিকেরা তাঁদের মাইক্রোফোন এগিয়ে দিতে মিটিংয়ের আগেই সাংবাদিকদের সামনে যা বললেন তাঁরা,তা থেকে এইটুকু নিশ্চিত তাঁরা এখনি তাদের দাবি থেকে সরছেন না | অত্যন্ত সম্মান দিয়েই মুখ্যমন্ত্রী এযাবৎ যেসব কথা বলেছিলেন একে একে সবগুলোরই পাল্টা বক্তব্য রাখলেন আন্দোলনরত চিকিৎসকদের প্রতিনিধিরা | নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় বলেছিলেন, জুনিয়র চিকিৎসকদের সব দাবি নিয়ে রাজ্যপালের সঙ্গে কথা হয়ে গিয়েছে| এবং তিনি সব দাবি মেনেও নিয়েছেন | তাঁরই পরিপ্রেক্ষিতে চিকিৎসকদের প্রতিনিধি জানান, নবান্নে তাঁদের ডাকা হলেও যেহেতু কোন রুদ্ধদ্বার বৈঠকে তাঁরা যেতে রাজি নন,তাই কীভাবে তাঁদের সব দাবি উনি না শুনেই মেনে নিলেন ? পরিবহ মুখার্জির অবস্থার উন্নতি হয়েছে | একথার সম্পূর্ণ ভিন্ন ছবি সামনে নিয়ে আসেন তাঁরা | তাঁরা বলেন, পরিবহর দৃষ্টিশক্তি স্বাভাবিক হয়নি| হারাচ্ছে তাৎক্ষণিক স্মৃতিও | তাই এই অবস্থায় সে ভালো আছে একথা ঠিক নয়| শনিবার রাজ্যপাল পরিবহ কে দেখতে যান| তাঁর শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিয়ে বেরিয়ে সংবাদ মাধ্যমকে জানান,মুখ্যমন্ত্রীর উচিৎ দ্রুত সেই অচলাবস্থা কাটিয়ে ফেলা ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা | এ পর্যন্ত দুদিনে ৫০০এর ওপরে চিকিৎসক পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন| তাঁতে আরো জোরদার হয়েছে আন্দোলন| সাংবাদিক বৈঠকে তাঁদের কথা বার্তায় নমনীয় ভাব থাকলেও তাঁরা যে আদৌ নিজেদের দাবি থেকে সরছেন না এখনি তা বেশ পরিষ্কার | মুখ্যমন্ত্রীর কাছে তাঁদের আবেদন,আপনি একটা হাত বাড়ান,আমরা দশটা হাত বাড়াবো |

শনিবার গভীর রাতে জিবি মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন আন্দোলনরত ডাক্তারেরা | তাঁরা বলছেন তাঁরা রাজি | শুধু দাবি মেনে নিলেই সেই মুহূর্ত থেকে কাজে যোগ দেবেন তাঁরা | মুখ্যমন্ত্রী বলছেন,তিনিও রাজি আলোচনায়| কিন্তু ডাক্তারেরা আসছেন না| রাজ্যপাল বলছেন সমস্যার সমাধান করতে | তাঁর পরিবহকে গিয়ে দেখে আসায় কৌশলগত চাপ বেড়েছে মুখ্যমন্ত্রীর উপর মনে করছে রাজনৈতিক মহল | প্রথম থেকেই দলের অন্দরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই ইস্যুতে নেওয়া সিদ্ধান্তগুলির উপর খুব খুশী ছিলেননা তাঁর ঘনিষ্ঠ অনুগামীরাও | রাজ্যবাসী তথা দেশবাসী যখন সেই সমস্যা মিটিয়ে নিতে আবেদন করছে, তখন শুধুমাত্র নত না হওয়ার কারণেই কি এই অনমনীয় মনোভাব তাঁরও ? তবে শনিবারের পর মুখ্যমন্ত্রীর কোর্টে বল ঠেলে দিলেন জুনিয়র ডাক্তার ও রাজ্যপাল | মনে করছেন ওয়াকিবহাল মহল | এসবের পর আবার নবান্ন থেকে কি বার্তা দেন মুখ্যমন্ত্রী সেদিকেই তাকিয়ে এখন কয়েক কোটি রাজ্যবাসী|

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here