পুণেতে বাড়ি ভেঙে মৃতের তালিকায় বাংলার ঠিকা শ্রমিক,পরপর দু্র্ঘটনায় তদন্ত কমিশন গড়ার নির্দেশ

0

Last Updated on

বাংলায় উন্নয়ন হয়েছে বলে শাসকদল যতই দাবি করুন না কেন, বাংলায় শ্রমিকদের যে কাজ নেই তা মরে প্রমাণ করলেন পুণের শুক্রবার রাতের দুর্ঘটনা । দুদিন ধরে একনাগাড়ে প্রবল বৃষ্টি | পরিসংখ্যান বলছে, ২০১০ সালের পর শুক্রবারই রেকর্ড বৃষ্টি হয় পুণেতে | আর তাতেই আবাসনের পার্কিং লটের দেওয়াল ভেঙে বড়সড় দুর্ঘটনা | দেওয়াল চাপা পড়ে প্রাণ গেল বাংলা-বিহারের ১৫ জন শ্রমিকের । একই সঙ্গে গুরুতর জখম ৪ শিশুসহ ১ মহিলা | দেওয়ালের তলায় চাপা পড়েছে বহু গাড়িও | তারা প্রত্যেকেই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ।

ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার গভীর রাতে | আনুমানিক দুটো নাগাদ মহারাষ্ট্রের পুণের কোন্ধওয়ায় একটি আবাসনের প্রায় ১৫ ফুটের একটি দেওয়াল হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে | ওই দেওয়ালের গা ঘেঁষে থাকা শ্রমিকদের টিনের ছাউনির ওপর | সারাদিনের কাজ সেরে গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন ছিলেন তখন শ্রমিকরা | ঘুমের মধ্যেই এই দুর্ঘটনা হওয়ায় মৃতের সংখ্যা বেড়েছে বলে অনুমান | ঘটনাস্থলে সঙ্গে সঙ্গেই পৌঁছয় জাতীয় বিপর্য়য় মোকাবিলা দফতর ও দমকল কর্মীরা | তাদের চেষ্টায় ওই ধ্বংসস্তূপ থেকে সব সবাইকে বের করা সম্ভব হয়েছে |

মহারাষ্ট্রের মুখ‍্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। সঙ্গে সঙ্গে নিহতদের প্রতি গভীর শোক প্রকাশ করেছেন এবং নিহতদের পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানানোর পাশাপাশি ৫ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণের ঘোষণা করেছেন | পুণের পুলিশ কমিশনার কে ভেঙ্কটেশম্ জানান, তদন্ত চলছে। ইতিমধ্যেই ওই বিল্ডিংয়ের মালিকের বিরুদ্ধে এফ আই আর দায়ের করা হয়েছে | কেন্দ্রীয় মন্ত্রী চন্দরশেখর পাতিল ঘটনাস্থলে পৌঁছে একটি তদন্ত কমিটি গড়ার নির্দেশ দেন |তা নিয়ে পুণের কালেক্টরকে বলেন, পুণেতে বেআইনী কোন বাড়ি আছে কিনা তা খুঁজে যেন অবিলম্বে একটি তালিকা তৈরি করতে |

এদিকে পুণের জেলা কালেক্টর নওলকিশোর রাম অনুমান করছেন, অতি বৃষ্টিতেই ভেঙেছে দেওয়াল । তবে নির্মাণ সংস্থার কোনো গাফিলতি আছে কিনা, সেটাও খুঁজে দেখা হচ্ছে। নিহতরা মূলত উত্তরপ্রদেশ,বাংলা,বিহার ও ওড়িশা থেকে আসা ঠিকাদারি শ্রমিক । তাদের কাজের জায়গার দূরত্ব সেখান থেকে ৪০ফুটের মধ্যেই বলে জানিয়েছে দমকল কর্মীরা | তাই তারা ওখানেই থাকত |
প্রসঙ্গত ২০১২ তে ১৩জন একবার, এবং ৬জন আরেক দুর্ঘটনায় ,২০১৬তে নজন ,২০১১৭ তে তিনজন মারা যাওয়ায় ইমারতগুলির গুণগত মান নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েছেন বলে সূত্রের খবর | তাই কিমশন গঠন করে মিউনিসিপ্যাল গাইডলাইন সব মেনে বাডিগুলি তৈরি হচ্ছে কিনা তা নিয়ে কঠোর অবস্থান নিতে চলেছে প্রশাসন |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here