“পুলিশ দিয়ে বিজেপির কর্মসূচি রোখা যাবেনা “, হুঁশিয়ারি দিলীপ ঘোষের

0

Last Updated on

দক্ষিণ দিনাজপুর : পুলিশ-বিজেপি সংঘর্ষে রণক্ষেত্র দক্ষিণ দিনাজপুরের বুনিয়াদপুর। রাজ‍্যে কোনও রকম বিজয় মিছিল করা যাবে না বলে দুদিন আগেই মুখ‍্যমন্ত্রী ফতোয়া জারি করেছিলেন। কিন্তু সে ফতোয়া ভেঙে শুক্রবারই শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের বিজয় মিছিল দেখা গিয়েছে বিভিন্ন জেলায়| শনিবার দক্ষিণ দিনাজপুরের বুনিয়াদপুর এলাকায় বিজেপির নাগরিক অভিনন্দন যাত্রার আয়োজন করা হয় ওই জেলা নেতৃত্বের তরফে| এদিনই বালুরঘাটের বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদারকে সঙ্গে নিয়ে রাজ‍্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ গঙ্গারামপুরে একটি সভাও করেন। বিজেপির অভিযোগ,সেই সভায় যোগ দিতে আসার সময় তাদের সমর্থকদের পথ আটকায় পুলিশ| শুরু হয় ধ্বস্তাধ্বস্তি| কিছুক্ষণের মধ্যেই ওই এলাকা রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় | দেদার চলে ইট ও পাথর বৃষ্টি| সংঘর্ষে দু’পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হয় ।

এই জেলার বেশ কিছু কার্যকর্তা ও কর্মী আহত হন বলে জানান বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ| পরে সাংবাদিকদের দিলীপবাবু জানান, বুনিয়াদপুরে কোনো দলীয় মিছিল ছিল না । তিনি জেলা পার্টি অফিসে এসেছিলেন এবং বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা বুনিয়াদপুর, গঙ্গারামপুর, কুশমণ্ডী এলাকা থেকে সেখানে আসছিলেন । বুনিয়াদপুরের সভা শেষে তাঁরা গঙ্গারামপুর বাসস্ট্যান্ডের দিকে এগোতেই ১৪৪ ধারা জারি রয়েছে বলে তাঁদের পথ আটকায় পুলিশ । সেখান থেকেই গন্ডগোলের সূত্রপাত,বলেন দিলীপবাবু| তিনি বলেন, তৃণমূল ভয় পেয়েছে বলেই পুলিশকে কাজে লাগিয়ে বিজেপিকে আটকানোর চেষ্টা করছে, যে সব জায়গায় হেরেছে সেখানে | জেলা প্রশাসন নিরপেক্ষ থাকলে এই ধরনের ঘটনা ঘটত না বলেই অভিমত তাঁর | বিজেপি কর্মীর ছোঁড়া ইঁটের ঘায়ে মাথা ফাটে গঙ্গারামপুর থানার এ এস আই বিভু ভট্টাচার্যের, এই অভিযোগ সম্পূর্ণ অসত্য বলে উড়িয়ে দেন দিলীপবাবু | তিনি বলেন, তৃণমূলের দুষ্কৃতীদের আঘাতেই পুলিশ আহত হয়েছেন| এইভাবে পুলিশ দিয়ে বিজেপিকে রুখতে চাইলে প্রয়োজনে প্রতিটি জেলার অঞ্চলে গিয়ে গিয়ে এই ধরণের কর্মসূচি নেবেন আগামীতে,সাফ জানান বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ|

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here