স্বাধীনতার ৭০বছর পর কাশ্মীর বিতর্কে জল ঢেলে রাজ্যসভায় ঐতিহাসিক বিল পেশ অমিত শাহের

0

Last Updated on

সংসদ অধিবেশনর শেষ দিনে বাজিমাত বিজেপি চালিত কেন্দ্রীয় সরকারের | জম্মু কাশ্মীর আর কোন রাজ্য নয় | এবার তা মর্যাদা পাবে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের | সঙ্গে লাদাখকেও একই সূত্রে বাঁধার প্রস্তাব স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের রাজ্যসভায় দাঁড়িয়ে | শুরুটা হয়েছিল লোকসভা ভোটের ফলাফলের কিছুদিন পরেই | আর্টিক্যাল ৩৭০এর সংশোধনার খসড়া তৈরি শুরু হওয়া থেকে ঘোষণা প্রতিটিতেই সক্রিয় ভূমিকা ছিল প্রধানমন্ত্রীর ম্যান ২-এর | স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক হাতে নিয়ে যে যুগান্তকারী কোন সিদ্ধান্ত নেবেন অমিত শাহ তা বোঝা গিয়েছিল সংসদের অধিবেশন যত এগিয়েছে ততই |

জুলাইয়ের শেষ দিকে অমরনাথ যাত্রা স্থগিত করে দেওয়া, তার আগে আরপিএফের কর্মীদের বেশি পরিমাণে রসদ জমা করার নির্দেশ,বেশি সংখ্যক সিআরপিএফ জওয়ানদের উপত্যকায় মোতায়েন,বিধানসভা ভেঙে দেওয়া,একাধিক বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতাকে জেলে ভরা, সর্বোপরি রবিবার রাত থেকে মেহবুবা মুফতি,ওমর আবদুল্লা,সাজিদ লোনের মত নেতাদের রবিবার রাত থেকে গৃহবন্দীর সিদ্ধান্ত থেকে গোটা দেশ মোটামোটি নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল যে মোদি সরকারের প্রথম ইনিংস যদি নোটবন্দী নিয়ে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকে ভারতের রাজনীতিতে , তবে এই ইনিংসে বিতর্কিত কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে ঐতিহাসিক কোন সিদ্ধান্ত নেবে মোদি-শাহ জুটি |

সোমবার সকালে মন্ত্রীসভার বেঠক এবং তার আগে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর রুদ্ধদ্বার দীর্ঘক্ষণের আলোচনার পরই সোমবার সংসদে রাজ্যসভায় পেশ হয় আর্টিক্যাল ৩৭০এর অপসারণের সেই ঐতিহাৈসিক সংশোধনী | যদিও রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যসভার মুখ ডেরেক ও ব্রায়েন এই বিল পেশের সম্মতি দেওয়ার অদিকার সংসদের আছে তা নিয়ে প্রশ্ন করেন |

সংসদের স্পিকার বেঙ্কাইয়া নাইডু বিরোধীদের আশ্বস্ত করার চেষ্টা করেন এই বিল পেশের পর অনেকটা সময় দেওয়া হবে এই বিল প্রতিটি সদস্যের পড়ার জন্য | এরউপর তারপর চর্চা হবে | তারপরই গৃহীত হবে সিদ্ধান্ত | সবটাই রেকর্ডে থাকবে সভার | না এতেও মানেনি বিরোধীরা | বিল পেশের পরই শোরগোল জুড়ে দেয় রাজ্যসভায় বিরোধী সাংসদেরা | সংসদ মুলতুবি রাখতে বাধ্য হন স্পিকার |

পর্যবেক্ষকদের মতে শেষ দিনে এই বিল পেশ রাজনৈতিক চাল বিজেপির থিঙ্ক ট্যাঙ্কদের | এই বিল পেশের পরে উপত্যকার অবস্থা কোনদিকে যায়,বিরোধীরাই বা কতটা নিজেদেরকে এক সঙ্গে বেঁধে রাখতে পারেন এই ইস্যুতে এসব নিয়েই জল মাপতে এই বিল পেশ করেন রাজ্যসভায় শাহ | দেশের বাইরে আন্তর্জাতিক মঞ্চেও এ নিয়ে ভারতের পাশে কারা দাঁড়ায় আবার কারাই বা বিরোধীতা করে, তাও দেখার একটি মোক্ষম চাল খেললেন মোদি সরকার বলে মনে করছেন সবাই | পাশাপাশি বিল যে পাশ হবেই তা নিয়ে একপ্রকার নিশ্চিত কেন্দ্রীয় সরকার | তা যে শুধু সময়ের অপেক্ষা বলছেন শাসক ঘনিষ্ঠ বুদ্ধিজীবিরাও | আর তার শুরুটাই রাজ্যসভায় করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here