রাস্তার জমা জলে ধান পুঁতে রাস্তা সারাইয়ের দাবি এলাকার গৃহবধূদের

0

Last Updated on

রাস্তা সারানোর দাবিতে সরব মানুষের প্রতিবাদের ভাষা একেক রকমের | এর আগে রাইজিং বেঙ্গলেই আমরা তুলে ধরেছিলাম রাস্তার বেহাল দশা বোঝানোর জন্য এলাকার মানুষ জমা জলে মাছ ছেড়ে দিয়ে প্রতিবাদ জানিেযছিলেন | যদিও বর্ষার তেমন প্রভাব পড়েইনি এবার গোটা দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে | তবু বৃষ্টির হালকা ইনিংসেই জমা জলে দুর্ভোগে এলাকাবাসীর নাভিশ্বাস ওঠার উপক্রম | গ্রাম বা শহর ছবিটা অনেকক্ষেত্রেই একই রকম |

একই অবস্থা বীরভূমের মহম্মদ বাজারের মানুষদের | দীর্ঘদিন ধরে রাস্তার বেহাল অবস্থা, পঞ্চায়েত অথবা ব্লক কোথাও জানিয়ে কোনরকম সুরাহা হয়নি । অবশেষে বিক্ষোভ দেখাতে এবং রাস্তা সারাইয়ের দাবিতে অভিনব পন্থা বেছে নিল মহম্মদবাজার ব্লকের আঙ্গারগড়িয়ার নতুনপল্লীর গৃহবধূরা ।

এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ, প্যাটেলনগর অথবা অন্যান্য জায়গায় যাওয়ার জন্য যে রাস্তা তাদের ব্যবহার করতে হয় সেই রাস্তা দীর্ঘদিন ধরেই একটু বৃষ্টিতেই জলমগ্ন হয়ে থাকে । পঞ্চায়েত এবং ব্লক অফিসে বহুবার এই সমস্যার কথা জানিয়েও কোনো সুরাহা হয়নি ।

রবিবার সকালে নিজের পরিবারের জন্য সময় দেননি মৌসুমি চক্রবর্তী,মমতা দাসের জন্য | বরং রাস্তায় নেমেছেন | উদ্দেশ্য একটাই প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করে সমস্যার সুরাহা করা | চিঠি চাপাটি দিয়ে ক্লান্ত এই মহিলারা রাস্তার জমা জলে ধান পুঁতলেন সকলের চোখের সামনে |

এলাকার গৃহবধূ মৌসুমী চক্রবর্তী জানান, ” রাস্তার এই যে বেহাল অবস্থা তার জন্য আমরা পঞ্চায়েত ও ব্লক কর্তৃপক্ষকে জানিয়েও যখন সুরাহা হয়নি তখন মাঠের ধান রাস্তায় পুঁতে বিক্ষোভ দেখাতে বাধ্য হয়েছি । ”

একদিকে চাষের জন্য পর্যাপ্ত বৃষ্টি না হওয়ায় প্রমাদ গুনছেন রাজ্য জুড়ে চাষীরা | সেকানে রাস্তার জমা জলে ধান পোঁতার এই অবিনব প্রতিবাদ স্বাভাবিকভাবেই শোরগোল ফেলে দেয় গোটা অঞ্চলে |

স্থানীয়দের বিক্ষোভ দেখানোর খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন আঙ্গারগড়িয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান সোনালী বাগদি । তিনি এলাকার গৃহবধূদের বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দেন | তার আশ্বাসের পরই উঠে যায় বিক্ষোভ ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here