কর্তৃপক্ষের মানসিক অত্যাচারের জেরে খনির সামনেই আত্মহত্যার চেষ্টা এক খনি শ্রমিকের

0

Last Updated on

রাইজিং বেঙ্গল ডেস্ক : অধস্তনের উপর উর্ধ্বতনের শোষণের অভিযোগে আত্মহত্যার ঘটনা | শুক্রবার সকালে জে কে নগর কোলিয়ারি চত্বরে এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ালো । অভিযোগ,কর্তৃপক্ষের মানসিক অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে ইসিএলেরর কয়লা খনির এক শ্রমিক আত্মহত্যার চেষ্টা করে । দীর্ঘ অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে খনিতে নামতে অসমর্থ থাকলেও জোরপূর্বক তাকে খনিতে নামাতে বাধ্য করে বলে অভিযোগ ওই কয়লা খনি শ্রমিকের | অগত্যা আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত | ঘটনার সময় তার এক হাতে ছিল পেট্রোল আর অন্য হাতে দেশলাই । এই দৃশ্য দেখে অন্যান্য কয়লা খনি শ্রমিকরা ছুটে এসে পেট্রোলের গ্যালন ও দেশলাই কেড়ে নেয় | মূলতঃ তাদের তৎপরতায় এ যাত্রায় প্রাণে বাঁচে ওই কয়লা খনি শ্রমিক । খনি চত্বরে এই আত্মহত্যার প্রচেষ্টাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় |

আরও পড়ুন: শাসকের শিক্ষক নেতার বিরুদ্ধে সাময়িক বরখাস্তের নির্দেশ তুলল কোন অদৃশ্য হাত ‍https://risingbengal.in/state/sikhkhoker-samoyik-borkhasto-tullo-kon-hath/

মানসিকভাবে সম্পূর্ণভাবে বিপর্যস্ত ওই খনি শ্রমিক বলেন, তিনি ইসিএলের কয়লা খনির একজন সাধারণ শ্রমিক । বিগত এক বছর ধরে শারীরিক অসুস্থতায় ভুগছেন । এই মর্মে ইসিএল কর্তৃপক্ষকে তাঁর শারীরিক অসুস্থতার বিষয়ে বিস্তারিত জানিয়ে অসুস্থতার প্রমাণস্বরূপ প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ একটি চিঠি জমা দিয়েছিলেন তিনি । ওই কাগজপত্র এবং চিঠি পাওয়ার পর ইসিএল কর্তৃপক্ষ ওই খনি শ্রমিককে কয়লাখনির ভেতরে কাজ না করে খনির ওপরে কাজ করার নির্দেশ দেন । সেই নির্দেশ অনুসারে বেশ কিছুদিন ধরেই কয়লাখনির ওপরে কাজ করছিলেন ওই শ্রমিক ।

আরও পড়ুন: দুর্গাপুরের অ্যালয় স্টিলের বিলগ্নীকরণ ঠেকাতে বিজেপি সাংসদের কাছে দরবার শ্রমিক-আধিকারিকদেরhttps://risingbengal.in/state/alloy-steel-er-bilognikoron-e-hostokhep-mp-r/

এরপর হঠাৎই ইসিএল কর্তৃপক্ষ জোরপূর্বক তাঁকে কয়লাখনির ভিতরে কাজ করার জন্য ক্রমাগত চাপ দেওয়া হতে থাকে । রাজি না হওয়ায় টাকা চাওয়ার অভিযোগও করছেন ওই শ্রমিক ইসিএল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে । উপায়ান্তর না দেখে দিশেহারা ওই শ্রমিক অবশেষে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন । এই ঘটনার বিষয়ে জে কে নগর কোলিয়ারির ম্যানেজারের সঙ্গে কথা বলা হলে এই প্রসঙ্গে অবশ্য মুখ খুলতে রাজি হননি তিনি ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here