হোটেলে মজুত পচা খাবার, গ্রাহকের অভিযোগে হোটেলে হানা মেয়র পারিষদের

0

Last Updated on

জাতীয় সড়কের পাশে গজিয়ে ওঠা হোটেলগুলি ধু ধু ফাঁকা জাতীয় সড়কের মাঝে মরুভূমিতে মরীচিকার সামিল | বিস্তীর্ণ পথ অতিক্রম করে যখন আপনি ক্লান্ত, তখন সেই হোটেলের এক মুঠো ভাতই যেন হয়ে ওঠে আপনার কাছে অমৃত | আর সেই হোটেলের খাবার নিয়েই যত গন্ডগোল | বেশ কিছুদিন ধরেই এই রকম জাতীয় সড়কের পাশে কয়েকটি হোটেলে নিম্নমানের খাবার দেওয়ার অভিযোগ উঠছিল জামুড়িয়ায় । গ্রাহকদের অভিযোগের ভিত্তিতে খাবার হোটেলে অভিযান চালালো আসানসোল পৌরনিগমের এমএম আই সি দিব্যেন্দু ভগত ।

আসানসোল পৌরনিগমের অন্তর্গত জামুরিয়া ২ নম্বর জাতীয় সড়ক সংলগ্ন নিঘা, শ্রীপুর মোড়, ডিভিসি মোড় সহ বেশ কয়েকটি জায়গায় গ্রাহকদের অভিযোগের ভিত্তিতে স্বাস্থ্যের মেয়র পরিষদ সদস্য দিব্যেন্দু ভগত হোটেলে অতর্কিতে হানা দেন তাঁর সদস্যদের নিয়ে | বেশ কিছু বাসি খাবার দেখে তিনি সেগুলোকে ফেলে দেওয়ার নির্দেশ দেন । কলকাতা থেকে আসা এক গ্রাহক সোনানন্দন মিশ্র অভিযোগ করেন হোটেলের খাবারের স্বাস্থ্য একদমই ঠিক ছিল না ,এমনকি বাসি খাবার দেওয়ায় খাবার থেকে দুর্গন্ধ বেরোচ্ছিল । খাবার নিয়ে হোটেল ম্যানেজারকে অভিযোগ জানালে তিনি কোন কিছুই শুনতে চাননি বলে তাঁর অভিযোগ । উপরন্তু হোটেল ম্যানেজার কাছে খাবারের বিল চাইলে তিনি বিলের সঙ্গে আরও ১৪ শতাংশ বাড়তি টাকা কেটে নেন ।

আসানসোল পৌরনিগমের স্বাস্থ্যের মেয়র পারিষদ দিব্যেন্দু জানান বেশ কয়েকদিন ধরেই গ্রাহকরা তাঁর কাছে খাবারের মান নিয়ে অভিযোগ জানাচ্ছিলেন । বৃহস্পতিবার কলকাতা নিবাসী সোনানন্দন মিশ্রর অভিযোগের ভিত্তিতে শেষমেশ অভিযানে যান তিনি । মেয়র ইন কাউন্সিল জানান অভিযান চলাকালীন তাঁরা লক্ষ্য করেন হোটেলের রান্না ঘরের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে নষ্ট হয়ে যাও খাবার মজুদ করা রয়েছে । সেই গুলোকেই গ্রাহকদের দেওয়া হত বলে আন্দাজ করেন তাঁরা | তিনি সেই সব পচা মজুত খাবার ফেলে দেওয়ার নির্দেশ দেন| পাশাপাশি হোটেল মালিককে হোটেলের সমস্ত কাগজপত্র নিয়ে আসানসোল পৌরনিগমের নিয়ে আসার জন্য নির্দেশ দেন । যদিও এই বিশেষ অভিযান নিয়ে হোটেলের পক্ষ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here