ছেলেধরা ও চোর সন্দেহে আসানসোলে বাড়ছে গণপিটুনির প্রবণতা

0

Last Updated on

কয়েকদিন আগেই গণপিটুনি রোধে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় বিল পাশ করা হয়েছে | রাজনৈতিক কারণেই হোক বা অন্য কোন কারণ ,গণপিটুনিতে অভিযুক্তকে অভিযোগ প্রমাণ হলে পেতে হবে শাস্তি | আসানসোলের বিভিন্ন ব্লকে বিশেষ করে প্রত্যন্ত গ্রামে বেশ কয়েকদিন ঘরেই গণপিটুনির প্রবণতা লক্ষ করা গিয়েছে | বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই হাতে বস্তা থাকলেই তাকে ছেলেধরা সন্দেহে শুরু হয়ে যাচ্ছে বেদম প্রহার | কখনও বা চোর সন্দেহে বেধড়ক মারধরের পর প্রায় আধমরা করে তারপর খবর দেওয়া হচ্ছে পুলিশে | পুলিশের হাতে অনেক সময়ই দিতে অনিচ্ছা প্রকাশ করছেন এলাকার মানুষ | অথচ সব ক্ষেত্রে তাদের সেই সন্দেহ সত্যি প্রমাণিত হচ্ছে না বলেই পুলিশের বক্তব্য | এমনই এক ঘটনায় শুক্রবার উত্তাল হয়ে উঠল জামুরিয়া ব্লকের নর্থ বুক কোলিয়ারি এলাকা|

ছেলেধরা সন্দেহে এক যুবককে বেধড়ক গণপিটুনি দিল উন্মত্ত জনতা । খবর পেয়ে পুলিশ ওই যুবককে উদ্ধার করতে গেলে স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে তীব্র বচসায় জড়িয়ে পড়ে তারা । এমনকি স্থানীয়দের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়েন পুলিশ কর্মীরা | এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে জাতীয় সড়ক অবরোধ করে স্থানীয় বাসিন্দারা । যার জেরে ২নং জাতীয় সড়ক সাত গ্রাম মোড়ের কাছে সৃষ্টি হয় ব্যাপক যানজট । চোর সন্দেহে ওই যুবককে বাঁশ লাঠি-সোটা নিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয় বলে পুলিশ সূত্রের খবর ।

স্থানীয় সূত্রে খবর বৃহস্পতিবার রাতে অপরিচিত দুই যুবককে নর্থ বুক কোলিয়ারি এলাকায় সন্দেহজনকভাবে ঘোরাফেরা করতে লক্ষ্য করেছিলেন এলাকার মানুষ | শুক্রবার সকালে ফের ওই সন্দেহজনক দুই যুবককে অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রের সামনে ঘোরাফেরা করতে দেখা যায় | সেই সময় অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রে বেশ কয়েকজন বাচ্চা পড়াশোনা করছিল বলে স্থানীয়দের দাবি । এরপর স্থানীয় বাসিন্দারা সন্দেহবশত তাদেরকে ধরতে এগোলে একজন দৌড়ে পালিয়ে যায় । বাকি আরেকজনকে যুবককে ধরে ফেলে স্থানীয় বাসিন্দারা ।

এরপরই স্থানীয় বাসিন্দারা উত্তেজিত হয়ে ওই যুবককে বেধড়ক মারধর করতে শুরু করে । খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে জামুড়িয়া থানার পুলিশ পৌঁছে যুবককে উদ্ধার করার চেষ্টা করে । সেই সময় পুলিশের সঙ্গে ব্যাপক বাক-বিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে স্থানীয় বাসিন্দারা । পুলিশের ও স্থানীয় বাসিন্দারা বচসা থেকে হাতাহাতি ও ধাক্কাধাক্কিতে জড়িয়ে পড়ে । ওই যুবককে উদ্ধার করে পুলিশ চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যায় ।

পরিস্থিতি উত্তপ্ত হতে থাকায় জামুরিয়া থানার পক্ষ থেকে বিশাল পুলিশ বাহিনী এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। কিছুক্ষণ পরই ২নং জাতীয় সড়ক যানজটমুক্ত করতে সক্ষম হয় পুলিশ । পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে জামুড়িয়া থানার পুলিশ ।

আরেকটি ঘটনার খবর পাওয়া যায় আসানসোলের সাঙতোরিয়া কোলিয়ারির | ব্যাগ হাতে সন্দেহজনত যুবককে দেখেই তাকে ঘিরে ধরে গ্রামবাসীরা | হাতে লাঠি নিয়ে শাসানো থেকে শুরু করে খালি হাতে চড়, মারধর সবই শুরু হয়ে যায় নিমেষে | ছেলে মেয়ে নির্বিশেষে চোর সন্দেহে পাকড়াও যুবকের উপর চড়াও হয় এই ঘটনায় |
বিগত এক মাসে বেড়েছে এই ধরনের ঘটনা | নানা জায়গা থেকে প্রায় ৫-৬টি খবর পাওয়া গিয়েছে যেখানে সাধারণ মানুষই আইনকে হাতে তুলে নিয়েছেন এভাবে | স্বাভাবিকভাবেই এতে চিন্তিত স্থানীয় প্রশাসন |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here