বছর ভর পুজোর চাঁদা তুলতে লক্ষ্ণীর ঘট হাতে দরজায় কর্মকর্তারা

0

Last Updated on

রাইজিং বেঙ্গল ডেস্ক : দুর্গাপূজার সুবর্ণ জয়ন্তী যখন আয়োজনে তো বিশেষত্ব থাকবেই । আর সেই বাড়তি আয়োজনের জন্য প্রয়োজন অতিরিক্ত আর্থিক অনুসঙ্গ । দুর্গাপূজায় এমনিতেই মধ্যবিত্ত বাঙালির পকেটে যথেষ্ট অত্যাচার চলে তারপর পুজোর চাঁদার বরাদ্দ রাশির থেকে অতিরিক্ত চাপ যদি পরে তাহলে যথার্থই তা সামাল দেওয়া দায় । এদিকে সুবর্ণ জয়ন্তীর জাঁকজমকেও ঘাটতি হলে চলবে না কিছুতেই । এই দুই সমস্যার সমাধান করেই সুবর্ণ জয়ন্তীর জন্য প্রয়োজনীয় অতিরিক্ত অঙ্কের চাঁদা সংগ্রহ করার এক অভিনব পন্থা বের করেছে রায়গঞ্জ শহরের বিবেক সংঘ নামের ক্লাবটি ।

চলতি বছরের দুর্গাপূজোর রেশ কাটতে না কাটতেই হাতে প্রায় এক বছর সময় বাকি থাকতেই এলাকাবাসীর আর্থিক সঙ্গতির কথা মাথায় রেখে তাঁদের চাপ মুক্ত করতে ক্লাবের সদস্য এবং এলাকাবাসীর যৌথ সিদ্ধান্তে এলাকার প্রতিটি বাড়িতে একটি করে লক্ষ্মীর ঘট সরবরাহ করা হয়েছে ক্লাবের পক্ষ থেকে । লক্ষ্মীর ঘট সরবরাহ করার পাশাপাশি প্রতিটি পরিবারকে অনুরোধ করা হচ্ছে, দৈনন্দিন বাজার খরচের উদ্বৃত্ত পয়সা সেখানে জমা করতে । এর ফলে আগামী দুর্গাপূজায় ক্লাবের সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে মোটা অঙ্কের চাঁদা দিতে তাঁদের কোনোরকম সমস্যার সম্মুখীন হতে হবেনা ।

আরও পড়ুন: রাজনগরে মদনমোহনের ভোগেই হয় মা দুর্গার পুজো https://risingbengal.in/saradiya/devi-durga-worshipped-by-madanmohan-prasad/

এলাকার বাসিন্দারাও এই পদ্ধতিকে খুশী মনে স্বাগত জানিয়েছেন পাশাপাশি এই অভিনব উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে ক্লাবের সদস্যদের সাধুবাদও জানিয়েছেন । টুকাই দে ও দীপিকা কর প্রভৃতি এলাকাবাসী এবং এক ক্লাব সদস্যা তপতী দাসের কথায়, এই অভিনব উদ্যোগের ফলে ক্লাবের পুজোর সুবর্ণ জয়ন্তীতে এলাকাবাসীরা বাড়তি চাঁদা দিতে কোনরকম আর্থিক চাপে পড়বেন না । একবছরে প্রতিদিনের জমানো টাকা একত্রিত করে এক বড় অঙ্কের চাঁদা দিতে সক্ষম হবেন তাঁরা । পাশাপাশি পুজো কমিটির সুবর্ণ জয়ন্তী যথাযথ রূপে পালন করার জন্য প্রয়োজনীয় বাড়তি চাঁদাও আদায় হবে অনায়াসেই । ফলে আগামী বছর সুবর্ণ জয়ন্তীতে মায়ের পুজোয় জাঁকজমক করতে কোনরকম অসুবিধার মুখে পড়তে হবে না বিবেক সংঘকে । পুজোর চাঁদা আদায় করতে যখন চারিদিকে চলছে জুলুমবাজি সেখানে বিবেক সংঘের এই উদ্যোগে খুশি এলাকাবাসী |

আরও পড়ুন: মৃণ্ময়ী নয়,শ্বেত পাথর এবং রুপোয় গড়া মাতৃ মূর্তি ধরা দেবে শিল্পীর সৃজনে https://risingbengal.in/saradiya/shet-pathor-o-rupor-murti-dhora-debe-shilpir-srijone/

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here