পণ অনাদায়ে মারধরে অভিযুক্ত সিভিক ভলেন্টিয়ার পুলিশ

0

Last Updated on

অতিরিক্ত পণের দাবিতে লাগাতার বধূ নির্যাতনের পাশাপাশি ওই গৃহবধূকে মারধরের অভিযোগ উঠল স্বামীর সহ পরিবারের লোকজনদের বিরুদ্ধে । অভিযুক্ত স্বামী একজন সিভিক ভলেন্টিয়ার । এই ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায় । সংশ্লিষ্ট বিষয়ে উত্তর দিনাজপুর জেলার গোযালপুকুর থানার ওই সিভিক ভলেন্টিয়ারের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানালেন ওই গৃহবধূর পরিবারের লোকজনদের পাশাপাশি এলাকার মহিলারা । জানা গেছে,গোয়াল পুকুর থানার ঝাড়বাড়ি এলাকার লক্ষী সরকারের সঙ্গে ওই এলাকারই সুনাম সরকারের সামাজিক মতে বিয়ে হয় | বিয়ের সময় যৌতুক দেওয়া হলেও এরপর থেকেই তার স্বামী সহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা এক লক্ষ টাকা অতিরিক্ত এবং সঙ্গে আরও একটি মোটর বাইক দাবি করে বসে । দাবি পূরণ না হওয়ায় ওই গৃহবধূকে দিনের পর দিন শারীরিক এবং মানসিকভাবে অত্যাচার চালাতে থাকে । তারা সংশ্লিষ্ট বিষয়ে একটি গ্রাম্য সালিশি বসলেও আদৌ তাতে সমস্যার কোনো সমাধান হয়নি । বরং অত্যাচারের মাত্রা দিন দিন বাড়তেই থাকে । এরপর ওই পরিবারের লোকজন গৃহবধূ লক্ষ্মী সরকারকে বলপূর্বক গর্ভপাত ঘটায় । অবশেষে গত বুধবার অত্যাচারের মাত্রা চরমে ওঠে । ওই গৃহবধূকে তার স্বামী সহ পরিবারের লোকজন মিলে মারধর করে বলে অভিযোগ । এই ঘটনার পর গ্রামবাসীরা ওই গৃহবধূকে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করে দেন । এরপর সংশ্লিষ্ট বিষয়ে গোয়াল পুকুর থানার সিভিক ভলেন্টিয়ার এর বিরুদ্ধে বধূ নির্যাতনের অভিযোগ জানাতে গেলেও ওই অভিযোগ প্রথমে নেওয়া হয়নি বলে জানান এলাকার মহিলারা । এরপর সাহাপুর দুই গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য শক্তি সরকার সহ অন্যান্য মহিলারা থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখায়। এরপরই সেই অভিযোগ গ্রহণ করা হয় । ইসলামপুর পুলিশ জেলার পুলিশ সুপার শচীন মাক্কার জানান, অভিযোগ না নেওয়ার বিষয়টি ভিত্তিহীন । পুলিশ ঘটনা তদন্তে নেমেছে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here