‘বিদ্রোহী কবি ‘ রইলেন অবহেলায়, বাধ সাধল নির্বাচনী বিধি !

0

Last Updated on

কয়েকদিন আগেই বাংলা উত্তাল হয়েছিল কলকাতার একটি নামী কলেজে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙা নিয়ে| কলকাতা পুলিশের সিট গঠন করে তা নিয়ে তদন্তও চলছে| যদিও কাউকে সামনে নিয়ে এসে মূল অভিযুক্ত রূপে চিহ্ণিত করণ এখনও হয়নি| মণীষীদের এ রাজ্যে বাম আমলের হৃত গৌরব ফিরিয়ে আনতে উদ্যোগী হয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর শাসনের প্রথম দিন থেকেই| বাঙালির সংস্কৃতিকে ও ঐতিহ্যকে পাথেয় করেই চলতে নির্দেশ দিয়েছিলেন তাঁর অনুগামীদের| তাই রাজ্যের নানা স্থানে প্রতি মনীষীর জন্মদিন ও প্রয়াণে মাল্যদান করে নেত্রীর কাছে যাওয়ার একটি প্রতিযোগিতাও যেন দেখা যেত কখনও| সেই বাংলাতেই উলটপুরাণ| কাজী নজরুলের জন্মবার্ষিকীতে কবি অবহেলায় পড়ে রইলেন এক কোণায়| একটি মালাও জুটল না তাঁর গলায়|

ঘটনাটি বীরভূমের দুবরাজপুরের পাওয়ার হাউজ মোড়ের কাছের| যেখানে কাজী নজরুল ইসলামের একটি স্ট্যাচু রয়েছে । সেখানে প্রতিবছরই মঞ্চ করে কাজী নজরুল ইসলামের জন্ম-জয়ন্তী পালন করা হয়। কিন্তু এবারেই তার ঘটল সেই ব্যতিক্রম ঘটল। যেখানে পৌরসভার তরফ থেকে তো নয় সাধারণ মানুষও স্মরণ করলেন না বিদ্রোহী কবিকে । এই ঘটনা পৌরসভার সামনে তুলে ধরতেই ,পৌরসভার পক্ষ থেকে বিদায়ী চেয়ারম্যান পীযূষ পান্ডে জানান যে, ভোটের জন্য নজরুল জয়ন্তী করা যায়নি। কারণ ২৭ তারিখ পর্যন্ত নির্বাচন বিধি লাগু আছে । তাই পরের সপ্তাহে নজরুল জয়ন্তী পালন করা হবে। এতে সাধারণের প্রশ্ন ভোটের আচরণবিধি থেকে বেরিয়ে এসেও শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করলে কোন ক্ষতি ছিল কি? ভোটের ফলাফল বেরিয়ে যাওয়ার পরও এই যুক্তি তাই মোটেই গ্রাহ্য নয় বলেই মনে করেন স্থানীয়রা|

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here