আদালতে আব্যাহত অচলাবস্থা, ন্যায় বিচারের আশায় পথে নামলেন আইনজীবীরা

0

Last Updated on

দক্ষিণ দিনাজপুর: ২৪ শে এপ্রিল হাওড়ার জেলা আদালতের সামনে গাড়ি রাখাকে কেন্দ্র করে আইনজীবী ও প্রথমে হাওড়া পৌরসভার কর্মীরা এবং পরে পুলিশি নিগ্রেহর প্রতিবাদে গোটা রাজ্য জুড়ে আইনজীবীরা পেন ডাউন কর্মসুচী আজও অব্যাহত| আইনজীবীরা প্রকৃত দোষীদের উপযুক্ত শাস্তি চান| অন্যথায় তাদের এই কর্মসূচি চলবে বলে জানিয়েছেন তাঁরা| সেই কর্মসুচির অঙ্গ হিসেবে শুক্রবার দক্ষিণ দিনাজপুরের জেলা জর্জ কোর্টের আইনজীবীরা জেলা আদালতের মুখ্য বিচারক ও দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার জেলা শাসকের কাছে ডেপুটেশন জমা দেন| মৌন মিছিলটিতে পা মিলিয়েছেন দুশো জনেরও বেশি ল ক্লার্ক ও আইনজীবী| রাজ্যের সব আদালত চত্বরে কাজকর্ম পুরোপুরি বন্ধ| আইনজীবীদের এই কর্মবিরতির ফলে বিপদে পড়ছেন জেলার দূরদূরান্ত থেকে আসা মানুষেরা। জামনিনর গুরুত্বপূর্ণ শুনানি বন্ধ থাকায় লঘু পাপে অনেকেরই জেলের মেয়াদ দীর্ঘতর হচ্ছে| অন্যদিকে কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি টি বি রাধাকৃষ্ণণের ডিভিশন বেঞ্চ আদালত চত্বরে আইনের শাসন মেনে চলার কঠোর নির্দেশ দেন| এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে দায়ের হওয়া একাধিক জনস্বার্থ মামলার পরিবর্তে বৃহত্তর জনস্বার্থের কথা মাথায় রেখে রিট পিটিশন দাখিলের নির্দেশ দেন| সরকারকে তাঁর নির্দেশে, ৬ই মে তে হওয়া লোকসভা ভোট সুষ্ঠুভাবে পরিচালনায় নির্বাচন কমিশনকে সাহায্য করার কথা বলেন| ভোট মিটে গিয়ে দিন দশেক কেটে গিয়েছে| ঘটনার পরপরই সেদিন সেখানে জেলার প্রথম সারির শাসক নেতা তথা রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ রায় পৌঁছে গেছিলেন| ফলে সরকারি বা বেসরকারি ভাবে গোটা বিষয়টি সম্পর্কে তিনি অবহিত| তবে সাধারণ মানুষের প্রশ্ন রাজ্য জুড়ে সমস্ত আদালতে যে অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছে,তা কাটাতে কেন উদ্যোগী হচ্ছেনা রাজ্য সরকার? রাজ্যের আইন মন্ত্রীই বা দু-পক্ষকে ডেকে নিয়ে কোন সমঝোতার রাস্তা বাতলে দিচ্ছেন না? বিরোধীরা অবশ্য এর পিছনে অন্য কারণ দেখছেন| ভোটের সময় শাসকের চালানো নানা অত্যাচারের অভিযোগ নিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হওয়ার পথ বন্ধ করতেই কি জিইয়ে রাখা হয়েছে অচলাবস্থা, প্রশ্ন করছেন তাঁরা|

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here