ট্রাম্পের মুখে ‘কাশ্মীর ‘মধ্যস্থতা আদতে পাকিস্তানেরই চাল

0

Last Updated on

পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের তিনদিনের মার্কিন সফর যথেষ্টই ঘটনাবহুল এ পর্যন্ত | বেলোচ যুবকদের পাক বিরোধী স্লোগানের পর এবার দুই প্রধামন্ত্রীর আলোচনায় কাশ্মীর সমস্যাকে টেনে নিয়ে নয়া বিতর্ক খাঁড়া করলেন স্বয়ং মার্কিন প্রেসিডিন্টে ডোনাল্ড ট্রাম্প | বললেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নাকি দুই প্রতিবেশীর মধ্যে মধ্যস্থতার দায়িত্ব তাঁর উপরেই সঁপেছেন |

ইমরান ও ট্রাম্পের যৌথ সাংবাদিক বৈঠকের সময় মার্কিন প্রেসিডেন্টের এহেন বিবৃতির পরই নড়েচড়ে বসে ভারতের বিদেশ মন্ত্রক | ট্রাম্পের এই বক্তব্যের পরপরই বিদেশমন্ত্রকের তরফে রবিশ কুমার জানিয়ে দেন , যে মধ্যস্থতার কথা সংবাদমাধ্যমে কাছে বলেছেন ট্রাম্প তা মোটেই ঠিক নয় | এরকম কোন অনুরোধ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কখনই করেননি | বরং ভারত সবসময় চেয়েছে কাশ্মীর সমস্যার সমাধান হোক দ্বিপাক্ষিকভাবে | তা সিমলা চুক্তি ও লাহোর ঘোষণা চুক্তির অনুসারেই হওয়া সম্ভব ভারত-পাকের মধ্যে | তবে এগুলি তখনই হবে যখন পাকিস্তান, সীমান্তে বিনা প্ররোচনায় সন্ত্রাস বন্ধ করবে |

তবে আন্তর্জাতিক কূটনৈতিক মহলের চোখে ট্রাম্পের এই বক্তব্যের পিছনে উদ্দেশ্য খুঁজছেন অনেকেই | মার্কিন-পাক দ্বিপাক্ষিক আলোচনার অভিমুখ দুই দেশের অর্থনীতি উন্নতি করা হলেও পাকিস্তানকে নিরাপত্তা দিতে রাজি হয়নি মার্কিন প্রশাসন | বরং আফগানিস্থানের সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ কীভাবে কমানো যায় আলোচনা হয়, তা নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলে হোয়াইট হাউস সূত্রের খবর |

ভারত ও পাক সম্পর্কের উন্নতি না হলে দক্ষিণ এশিয়ার সার্বিক উন্নতি কোনভাবেই সম্ভব নয় | তা জানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র | দক্ষিণ এশিয়ার শক্তিশালী দেশগুলির মধ্যে যে খুব তাড়াতাড়ি নিজের জায়গা পাকা করে ফেলছে মোদি ভারত তা জানেন সব রাষ্ট্রনেতাই | অন্যদিকে পাকিস্তানের আর্থিক অবস্থার চূড়ান্ত অবনতি | এই দৈন্য দশা কাটাতে তাদের আর্থিক সাহায্য প্রয়োজন | এই পরিস্থিতিতে পাকিস্তান বারবার মার্কিন প্রশাসনকে আন্তর্জাতিক ফোরামে আর্থিক বরাদ্দ বাড়ানোর অনেক আকুতি-মিনতি করেও কোন ফল না পাওয়ায় সব বিষয়েই মার্কিন প্রেসিডেন্টের শরণাপন্ন হন পাক প্রধানমন্ত্রী| তা সে সন্ত্রাসবাদই হোক বা আর্থিক লেনদেন |

তাছাড়া ভারতের উন্নয়নশীল অর্থনীতি ও দৃঢ় সামরিক শক্তি পাকিস্তানকে একটু হলেও সমঝে চলতে শিখিয়েছে বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষকেরা | তাই ট্রাম্পের মুখ থেকে বেরোনো এই মধ্যস্থতার কথা আদতে ভারত- মার্কিন সুসম্পর্কের কথা মাথায় রেখে ইমারানেরই চাল বলে মনে করছেন কেউ কেউ |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here