শিবাজির গরিমা খর্ব ও ‘অত্যাচারী’ মুঘলদের মহান দেখিয়ে ইতিহাস লিখে প্রবল বিতর্কে বিদেশিনী ঐতিহাসিক

0

Last Updated on

ভারতে মুঘল সাম্রাজ্যের সময় লুঠপাঠ ,ধর্ষণ ,ধ্বংসের ইতিহাসকে বইয়ের পাতায় অন্যভাবে পরিবেশিত করে বিতর্কে বিদেশি ইতিহাসবিদ অউড্রে ট্রাশকে | এই মহিলা ঐতিহাসিক তাঁর সদ্য প্রকাশিত বই ঔরঙ্গজেব,দি ম্যান অ্যান্ড দি মিথ-এ বিতর্কিত মন্তব্য করেন ছত্রপতি শিবাজিকে নিয়ে | তিনি বলেন,যারা আধুনিক ভারত নিয়ে কাজ করছেন এমন প্রতিটি ঐতিহাসিক এই কথা স্বীকার করে গিয়েছেন শিবাজি ১৬৬০সালে মুঘল সম্রাট ঔরঙ্গজেবের কাছে আত্মসমর্পণ করছিলেন | এমনকি তা পরের নানা ঘটনাপ্রবাহের মধ্যে দিয়ে প্রমাণিত বলেও দাবি করেন তিনি |

ঔরঙ্গজেব বইটিতে তাঁর আরও দাবি মুঘল সম্রাটেরা ভারতের সম্পদ রক্ষা করেছেন | তারা কখনই নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয়ের মত প্রতিষ্ঠানগুলিকে ধ্বংসের পিছনে দায়ী নন | বরং তাদের সময় ভারতকে সমৃদ্ধ করতেই তারা এই দেশের সম্পত্তি রক্ষা আগলে রেখেষেন | মুঘল সম্রাটদের ইতিহাসকে গৌরবোজ্জ্বল করে তুলতে তিনি লেখেন,ভারতে পরবর্তী শাসকেরা হিন্দু প্রভাবকে টিকিয়ে রেখে তাদের সম্রাটদের উচ্চ আসনে দেখানোর চেষ্টা করেছেন মাত্র |

নালন্দা বিশ্বিদ্যালয় ধ্বংসের পিছনে বখতিয়ার খলজির ভূমিকা অস্বীকার করা হয়েছে অউড্রের বইতে | বলা হয়েছে বখতিয়ার খলজি কোনভাবেই এর জন্য দায়ী নন | কিন্তু ভারতীয় ইতিহাস বলেন, বুদ্ধ-হিন্দু সম্পদ নষ্টের পিছনে একমাত্র হাত রয়েছে এই অত্যাচারী এই শাসকের | কথিত আছে, বখতিয়ার খলজি একবার ভয়ানক অসুস্থ থাকার সময় ততকালীন নালন্দার আয়ুর্বেদ বিশষজ্ঞ ডাঃ ভদ্রের কাছে চিকিতসা করান | তামাম হাকিম যা পারেননি সেটি ওই হিন্দু চিকিতসক করে দেখানোয় বেজায় চটেছিলেন বখতিয়ার | কোন অমুসলিম এগিয়ে যাবে তা সহ্য করতে না পেরে বখতিয়ার তাঁর শাসনকালেই নালন্দার লাইব্রেরি পুড়িয়ে দিয়েছিলেন বলে উল্লেখ রয়েছে একাধিক বইতে |

অউড্রের এই বই স্বাভাবিকভাবেই প্রবল বিতর্কের সৃষ্টি করেছে সোশ্যাল মিডিয়ায় | ভারতের রাজাদের ও শাসনকালকে ছোট করে দেখানোর চেষ্টার তীব্র প্রতিবাদ করেনদেশবাসী | বিখ্যাত লেখক তারেক ফাতাহ তাঁর ট্যুইটার হ্যান্ডেলে এর বিরোধীতা করে অউড্রেকে সমালোচনা করেন কঠোর ভাষায় বলেন, সাদা চামড়ার এই মহিলা নতুন করে ভারতের ইতিহাস লিখছেন | এরপরই বাকযুদ্ধে নেমে পড়েন ওই মহিলা ঐতিহাসিক | তিনি বলেন ,ভারতে হিন্দুত্ববাদীরা আসলে ইসলামকে ভয় পায় | তাই তাঁরা ইতিহাসকে মানতে চান না | তারেক সহ একাধিক মানুষ তাঁর যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলায় এমনকি তিনি তার বায়োডাটা আপলোড করে বলেন এরপর আর কোন প্রশ্ন থাকতে পারেন তাঁর যোগ্যতা নিয়ে |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here