মার্কিনি প্রশাসনের কব্জায় উত্তর কোরিয়ার জাহাজ,বাড়ছে দুদেশের কূটনৈতিক উত্তাপ

0

Last Updated on

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বৃহস্পতিবারের মধ্যে পরপর দুটি ছোট মাপের মিসাইল ছুঁড়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্কের আরও খানিকটা অবনতি ঘটাল উত্তর কোরিয়া| বিশ্বের কূটনৈতিক মহল অন্ততঃ তেমনই মনে করছেন| সপ্তাহখানেকের মধ্যে দুটি মিসাইলের উৎক্ষেপণের ফলাফল মার্কিনি নৌবাহিনীর হাতে উত্তর কোরিয়ার একটি কার্গো জাহাজ আটক হওয়া| ট্রাম্প প্রশাসন জানায় দুই দেশের মধ্যে বাড়তে থাকা উত্তেজনার জন্যই তারা ওই জাহাজটিকে আটক করে| এর আগে গত বছর এপ্রিল মাসে,উত্তর কোরিয়ার সবচেয়ে বড় কার্গো জাহাজ ওয়াইজ হোয়াইট’কেও তারা নিজেদের হেফাজতে নেয় বলে জানিয়েছে মার্কিন বিচার বিভাগ| মার্কিন প্রশাসন থেকে জানানো হয়,উত্তর কোরিয়ার এহেন মিসাইল ছোঁড়াকে কেউ মোটে ভালো চোখে দেখছে না,তা সে দক্ষিণ কোরিয়াই হোক বা জাপান|যদিও এরপরও ট্রাম্প প্রশাসন জানায় যে তারা উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে আলোচনার পথ খোলা রাখতে চায়| ২০১৭সালে দুই রাষ্ট্রপ্রধানের দ্বিপাক্ষিক আলোচনার হয়| তা যথেষ্ট ফলপ্রসূ বলে সংবাদমাধ্যমে জানান কিম ও ট্রাম্প| উত্তর কোরিয়া তাদের ব্যালেস্টিক মিসাইলের ক্ষেপণ বন্ধ করবে,এই মর্মে দু-দেশের সম্পর্ক খানিকটা থিতু হয়েছিল বলে মনে করা হচ্ছিল| কিন্তু উত্তর কোরিয়াকে আর্থিক সাহায্য দেওয়ার উপর যে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল মার্কিনি প্রশাসন তা নিয়ে যথেষ্ট মনোক্ষুণ্ণ হন কিম জং-এর দেশ|রাষ্ট্রপুঞ্জে একাধিকবার এই নিষেধাজ্ঞা তোলার আর্জি জানানো হয় উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে| এই আর্থিক সহায়তা না থাকলে স্বাচ্ছন্দ্য থেকে উত্তর কোরিয়রা বঞ্চিত হচ্ছেন,একথাও বলেন কিম| কিন্তু তাতে মোটেই কর্ণপাত করেনি ট্রাম্প প্রশাসন| আর সেজন্যই কি আবার সামরিক শক্তি পরীক্ষা করে নিজেদের অস্তিত্ব জানান দিচ্ছে কিমের উত্তর কোরিয়া,প্রশ্ন কূটনৈতিক মহলের|

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here