বাজি নিষ্ক্রিয় করতে গিয়ে বিস্ফোরণে কাঁপল নৈহাটির বিস্তীর্ণ এলাকা, ফাটল বাড়ি,অভিঘাতে দেড় বছরের শিশু সহ আহত দুই

0
at the time of bomb disposal 2person injured in naihati

Last Updated on

নৈহাটি থানার পুলিশ দেবকে থেকে যে সমস্ত বাজি উদ্ধার করেছিল আজ তা নিস্ক্রিয় করতে গিয়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের বাড়ির দেওয়াল, ছাদ, বাড়ির জানালা, জানালার কাচ ভেঙে যায় শব্দের আওয়াজে। ঘটনায় কয়েক জন আহত হয়েছে । পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে ঘটনার জেরে পরে স্থানীয় বাসিন্দারা পুলিশের দুটি জিপ জ্বালিয়ে দেয়। যদিও এলাকার মানুষের দাবি পুলিশ বাজি বাড়ি নিয়ে যাবে বলে গাড়িতে কিছু বাজি মজুত করছিল ।

আরো পড়ুন :প্রেমে প্রত্যাখ্যাত হয়ে প্রেমিকা ও তার বাবা মায়ের গায়ে কেরোসিন ঢালার অভিযোগ প্রেমিকের বিরুদ্ধে

নিষ্ক্রিয় প্রক্রিয়া চলাকালীন বিস্ফোরণের কারণে সেই বাজির আগুন পুলিশের বাজি বোঝাই গাড়িতে এসে পড়ে তাতেই পুলিশের গাড়িতে আগুন ধরে যায়। ঘটনার জেরে ব্যাপক উত্তেজনা ও আতঙ্ক ছড়িয়েছে। ঘটনাস্থলে বিশাল পুলিশবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। এলাকার মানুষের দাবি যেগুলি পুলিশ নিস্ক্রিয় করছিল সেগুলি বাজি নয় বোমা ছিল। সেই কারণেই এতবড় বিস্ফোরণ ঘটেছে ।

প্রসঙ্গত ৩ তারিখ নৈহাটির দেবক এলাকায় একটি বাজি কারখানায় বিস্ফোরণ হয়। ঘটনার জেরে প্রায় ১০ কিলোমিটার এলাকা কেঁপে ওঠে। বেশকিছু বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। মারাযান ৫ জন শ্রমিক। বাজি কারখানার মালিক নুর হোসেনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে নিজেদের হেফাজতে নেয়। অভিযোগ ছিল এলাকায় প্রায় ৬০ টির মত বড় ও সব মিলিয়ে ১০০ টির মত অবৈধ বাজি কারখানা চলছে ।

ঘটনার পর থেকেই পুলিশ এলাকার বাজি কারখানা গুলি থেকে বাজি উদ্ধার করে গঙ্গার ধারে নৈহাটির গরিফা এলাকার রাম ঘাটে নিস্ক্রিয় করছিল। সেই বাজি নিস্ক্রিয় করার সময়েই এই ঘটনা ঘটেছে।।উল্লেখ্য , নৈহাটির দেবক থেকে উদ্ধার হওয়া বাজি নিষ্ক্রিয় করার জন্য গৌরীপুর জুটমিল ছাইঘাট এলাকা বেছে নেয় পুলিশ ।

আরো পড়ুন :নৈহাটির বাজি কারখানাতে বিস্ফোরণ,খাগড়াগড়ের গন্ধ পাচ্ছেন সাংসদ অর্জুন সিং

বারংবার স্থানীয় মানুষ না করা সত্ত্বেও আজ তিনটে নাগাদ বোম ডিসপোজাল করার সময় ফেটে যায় এই ঘটনায় ১২টি পরিবারের ঘর ভেঙে যায়। এই ঘটনায় দুজন শিশু ও একজন বৃদ্ধ আহত হন। আহতদের উদ্ধার করে নৈহাটি স্থানীয় স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এই ঘটনায় ক্ষিপ্ত জনতা পুলিশের গাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে ছুটে আসে বিশাল সংখ্যক পুলিশ বাহিনী ও RAF ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here