শাঁখ বাজান, হার্ট অ্যাটাক এড়ান

0

Last Updated on

উত্তম মণ্ডল

হার্ট অ্যাটাক এড়াতে রোজ শাঁখ বাজান‌। হৃদয় ভালো থাকবে। শাঁখ বাজালে হৃদযন্ত্রের ব‍্যায়াম হয়। আর তাতেই হঠাৎ করে হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা থাকে না। শাঁখ নিয়ে এমনই মত চিকিৎসা বিজ্ঞানীদের‌।
প্রমাণ ?
পুরুষদের তুলনায় মেয়েদের হার্ট অ্যাটাক কম হয়। কারণ, পুরুত ঠাকুর বাদে সাধারণত বাড়ির মেয়েরাই শাঁখ বাজান বেশি‌‌‌‌‌। সেজন্য মেয়েদের হৃদযন্ত্র সবল থাকে বেশি।
শুধু তাই নয়, শাঁখ বাজালে ফুসফুসের রোগ সারে। তোতলা লোকের তোতলামি কাটে। এসব বহু প্রচলিত কথা।
শাঁখ কী ?
এককথায় শঙ্খ বা শাঁখ হলো এক ধরণের বড়ো আকারের সামুদ্রিক শামুক। এর বৈজ্ঞানিক নাম –“Turbinella Pyrum.”
গঠন কাঠামো দেখে শাঁখকে দুটি ভাগে ভাগ করা হয়, বামাবর্ত বা বামাবতী শঙ্খ এবং দক্ষিণাবর্ত বা দক্ষিণাবতী শঙ্খ। বামাবর্তীর ঘূর্ণন বামদিকে আর দক্ষিণাবতীর ডানদিকে। মূলত এই দক্ষিণাবতী শাঁখই হলো মহাভারতের শ্রীকৃষ্ণের “পাঞ্চজন‍্য।” এর ইংরেজি নাম –“Sinistral Tursinella Pyrum.”
অত্যন্ত দুর্লভ এই প্রজাতির শাঁখ খুবই কম সংখ্যায় পাওয়া যায় মায়ানমার সমুদ্রতট থেকে শ্রীলঙ্কা উপকূল পযর্ন্ত ভারত মহাসাগর ও বঙ্গোপসাগরে। ওজন ২৫০ থেকে ৩০০ গ্রাম।
আর দাম ?
দাম হলো ভারতীয় মুদ্রায় দু’লক্ষ টাকা।
এছাড়াও বিভিন্ন জাতের শাঁখ রয়েছে, যেমন কন‍্যাকুমারী, রামেশ্বরী, তিতপুটি, ঝাঁজি, দোয়ানি, গারবেশী, কাচাম্বর, ধলা, জাডকি, কেলাকর, সুরতি, গড়বাকি, খগা, মতি-সালামত, জামাইপাটি, এলপাকারপাটি,ওমেনি, সারভিকি প্রভৃতি। এর মধ্যে মতি-সালামত শাঁখের ভেতর মুক্তো থাকে।
কাঁটাযুক্ত দাগ থাকে যেসব শাঁখের গায়ে, সেগুলি স্ত্রী শাঁখ বা শঙ্খিনী। এগুলোর আওয়াজ হয় কর্কশ।
শাঁখের মধ্যে রয়েছে ম‍্যাগনেসিয়াম ও ক‍্যালসিয়াম। বসন্তের দাগ মেলাতে শাঁখের গুঁড়ো ব‍্যবহৃত হয়।
শাঁখ থেকে তৈরি হয় সধবা মেয়েদের হাতের শাঁখা। বহু মানুষের জীবন-জীবিকা জড়িয়ে রয়েছে এই শাঁখা শিল্পের সঙ্গে। প্রায় দু’হাজার বছর আগে দক্ষিণ ভারতে এই শাঁখা শিল্পের জন্ম হয়।
ভারতের উড়িষ্যার পুরী ও কর্ণাটকের সমুদ্র সৈকত থেকে জীবন্ত শাঁখ ধরা হয়।

শাঁখ একদিকে যেমন একটি বহু প্রচলিত বাদ‍্যযন্ত্র, অন‍্যদিকে তেমনি শিল্প ও ওষুধ তৈরির উপাদান।
যেভাবে চারদিকে হৃদয়ঘটিত সমস্যা বাড়ছে, তাতে হৃদযন্ত্র সবল রাখতে, হার্ট অ্যাটাক এড়াতে অত:পর নিয়মিত শাঁখে ফু়ঁ দেওয়ার অভ‍্যাস করা যেতেই পারে এখন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here