জনাদেশের দিনই উপত্যকায় খতম আল কায়দার কম্যান্ডার জাকির মুসা

0

Last Updated on

একদিকে লোকসভা ভোটের ফলাফল নিয়ে দেশ যখন তোলপাড়,তখন উপত্যকাতে চলছে জঙ্গি নিকেশের কাজ| ত্রালের দাদসারা গ্রামে গুলির লড়াইয়ে খতম হল মোস্ট ওয়ান্টেড জঙ্গি কমান্ড্যার জাকির মুসার ওরফে জাকির রসিদ ভাট| জাকির মুসা আলদায়দার শাখা সংগঠন আনসার-ঘাজওয়াত-উল-হিন্দের চিফ অফ অপারেশন রূপে উপত্যকায় নিযুক্ত হয়েছিল ২০১৭ সালের গোড়ার দিকে| এই জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে সরাসরি যোগ ছিল ইজরায়েল সহ মধ্য প্রাচ্যের ইসলামিক স্টেটের জঙ্গি সংগঠনগুলির সঙ্গে| এই সংগঠনের আত্মপ্রকাশ মার্কিনি রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পের ইজারায়েলে মার্কিন সেনাকে পাঠানোকে কেন্দ্র করে| এরপর ২০১৮ তে ভারতে জম্মু-কাশ্মীরের দায়িত্বে পাঠানো হয় মুসাকে| ভারতীয় সেনাবাহিনী সহ নিরাপত্তায় নিযুক্ত কর্মীদের মারাই ছিল এই জঙ্গি সংগঠনের মুখ্য উদ্দেশ্য| জেহাদি পুস্তক বিলির মাধ্যমে উপত্যাকার মুসলিম সম্প্রদায়কে উদ্বুদ্ধ করতে ২০১৮ সালের জুলাই মাসে সামনে আসে জাকির মুসার সন্ত্রাসবাদী সংগঠন| এরপর থেকেই মুসার জন্য় চিরুনি তল্লাশি শুরু করে যৌথবাহিনী| গোপন সূত্রে খবর পাওয়া যায় বৃহস্পতিবার ত্রালের ওই গ্রামে একটি বাড়িতে লুকিয়ে রয়েছে মুসা|এরপরই বাড়িটি ঘিরে ফেলে যৌথবাহিনী| শুরু হয় গুলির লড়াই|যদিও প্রথমে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয় মুসাকেঠ সেই সুযোগেই যৌথবাহিনীর উপর হামলা করে আনসার-ঘাজওয়াত-উল-হিন্দের চিফ অফ অপারেশন মুসা| গভীর রীত অবধি মুসার দেহ উদ্ধারের চেষ্টা চলতে থাকে| আপাতত গুলির লড়াই শেষ হলেও উপত্যাকা জুড়ে বনধের নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন| বন্ধ রাখা হয়েছে স্কুল,কলেজও| মুসাক্ খতমের পর অশান্ত হতে পারে উপত্যকা| এই আশঙ্কার কথা মাথায় রেখে নিরাপত্তা অক্ষুণ্ণ রাখতেই বনধের সিদ্ধান্ত বলে সেনা সূত্রের খবর|

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here