সুপ্রিম কোর্ট থেকে জামিনে মুক্ত বিজেপি মহিলা যুব মোর্চা নেত্রী প্রিয়াঙ্কা

0

Last Updated on

মঙ্গলবার দেশের সর্বোচ্চ আদালত থেকে জামিনে মুক্ত হলেন বিজেপির মহিলা মোর্চার নেত্রী প্রিয়াঙ্কা শর্মা| শুক্রবার প্রিয়াঙ্কা তাঁর ফেসবুক ওয়ালে মুখ্যমন্ত্রীকে নিয়ে একটি মেমে পোস্ট করেন| তা ভাইরাল হওয়ার পরই হাওড়ার সাইবার সেলের পুলিশ আধিকারিকেরা প্রথমে আটক ও পরে গ্রেফতার করে প্রিয়াঙ্কাকে| গ্রেফতারের পর তাঁকে ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়| নিম্ন আদালতে জামিন গ্রাহ্য না হওয়ায় সোমবার তাঁর পরিবার সুপ্রিম কোর্টে তার জামিনের আবেদন করেন| শর্তসাপেক্ষে সে আবেদন মঞ্জুর হয় মঙ্গলবার| প্রথমে জামিনের শর্ত হিসেবে তাঁকে মুখ্যমন্ত্রীর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে ক্ষমা চাইতে বলা হয়েছিল| আদালত সূত্রের খবর পরে সে শর্ত তুলে নেওয়া হয়| মঙ্গলবার সর্বোচ্চ আদালতে প্রিয়াঙ্কার আইনজীবী নীরজ কিষাণ কল সওয়াল করেন,যে তাঁর মক্কেল প্রিয়াঙ্কাকে বিজেপি করার অপরাধে গ্রেফতার করেছে বাংলার পুলিশ| মেমের সঙ্গে তাঁর কোন সম্পর্ক নেই| যদিও বিচারপতি ইন্দিরা ব্যানার্জি ও বিচারপতি সঞ্জীব খান্না তাঁদের পর্যবেক্ষণে বলেন,বাকস্বাধীনতা কারো মানহানি করলে তখন তা আইনের আওতায় পড়ে| এক্ষেত্রে এই মেমের মাধ্যমে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সামাজিক সম্মানহানি হয়েছে বলে মনে করছেন তৃণমূল কর্মী ও নেত্রী স্থানীয়রা| তাই প্রিয়াঙ্কাকে ক্ষমা চাইতে পরামর্শ দেন দুই বিচারপতির বেঞ্চ| অন্যদিকে প্রিয়াঙ্কার জামিনে খুশির হাওয়া তাঁর পরিবার ও বিজেপি কর্মীদের মধ্যে| রাজ্যে এই নিয়ে দ্বিতীয়বার এই ধরনের ঘটনা ঘটায় সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে| ২০১২ সালে অধ্যাপক অম্বিকোশ মহাপাত্র রাজ্যের মাওবাদীদের পর্তি সরকারের অবস্থান নিয়ে প্রশ্ন করায় তাঁকেও গ্রেফতার করা হয়েছিল| পাশাপাশি সাধারণ মানুষের কথায় কেন এত অসহিষ্ণুতা মাথাচাড়া দিচ্ছে শাসকের অন্দরে? বিভিন্ন সময় পাবলিক ডোমেনে থাকা সেলিব্রিটিদের মেমে বা পোস্ট হয়েই থাকে,সেক্ষেত্রে এত প্রতিক্রিয়া সেখানে দেখতে পাওয়া যায় না বলেই অভিমত সাধারণের| বিজেপির নেতৃত্বও নানা জনসভায় এই ঘটনার উল্লেখ করে সরব হয়েছেন ইতিমধ্যেই|

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here