আবারও প্রাসঙ্গিক রামমন্দির ইস্যু, ১৫ই ‌অক্টোবরের মধ্যে শেষ হবে শীর্ষ আদালতে মামলার শুনানি

0

Last Updated on

রামমন্দির হবে | এমন কথা শোনা গিয়েছে একাধিকবার দেশের প্রথম সারির বিজেপি নেতা-নেত্রীদের মুখে | এলাহাবাদ হাইকোর্টের রায়ও কম-বেশি সেই দিকই নির্দেশ করে | কিন্তু আইনি জটে শীর্ষ আদালতে আটকে থাকা সেই যুগান্তকারী পদক্ষেপ কীভাবে সম্ভব? বুধবার দেশের শীর্ষ আদালতের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ জানান , রাম মন্দির-বাবরি মসজিদ জটের আইনি শুনানি শেষ হয়ে যাবে অক্টোবরের ১৮ তারিখের মধ্যে | শুনানি পর্ব মিটলেই হবে রায় দান পর্ব | তাতে আবার রাজনীতিতে রামমন্দির ইস্যু প্রাসঙ্গিক হয়ে উঠবে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকেরা |

বহু যুগের এই বিতর্কের অবসানের দিকে তাকিয়ে গোটা দেশবাসী | শীর্ষ আদালতে প্রতিদিনই এই শুনানি পর্ব চলছে | দ্রুত এই মামলার নিষ্পত্তির জন্যই এই নির্দেশ দেন প্রধান বিচারপতি | পাশাপাশি আদালতের বাইরে গিয়ে নির্বাণী আখরা ও সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড নিজেদের মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে এই জমি ভাগাভাগির বিবাদ মেটাতে পারেন কিনা তা নিয়ে গড়া হয়েছিল মধ্যস্থতাকারী বিশেষ কমিটি | সেই প্রক্রিয়া চলছিল আদালতের পাশাপাশি| কিন্তু কয়েকদিন আগেই সেই বিশেষ কমিটি জানিয়ে দেয়, যে তাদের প্রস্তাবিত চারটি সমাধান সূত্রের স্বপক্ষে জোরালো কোন আওয়াজ দেননি মসজিদ কমিটি | ফলে তা আদৌ ফলপ্রসূ করা যাবেনা বলে মনে করে আলোচনার চেষ্টা ব্যর্থ এই মর্মে শীর্ষ আদালতে একটি রিপোর্ট পেশ করে| তারপরই প্রধান বিচারপতি এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেন |


কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপের পর সাবধানী কেন্দ্রীয় সরকার কোনভাবেই আরেকটি স্পর্শ কাতর বিষয় নিয়ে তাড়াহুড়ো করতে রাজি ছিলেন না | মধ্যস্থতাকারীর মাধ্যমে এই বিবাদ আদালতের বাইরেও তাই মিটিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন প্রধান বিচারপতি স্বয়ং | যদিও নির্বাণী আখড়া সুবিধেজনক পরিস্থিতিতে রয়েছেন ,প্রসঙ্গত তারা শীর্ষ আদালতে তাদের সরাসরি কোন ভূমিকা নেই | তবুও কমিটির প্রস্তাবে তারা রাজি ছিলেন না বলেই সূত্রের খবর| তবে মধ্যস্থতাকারী ওই বিশেষ কমিটি কর্তৃক কি সেই প্রস্তাব রাখা হয়েছিল বিবাদমান দুই তরফের মধ্যে তার গোপনীয়তা বজায় রাখা হয়েছে |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here