পাক অধীকৃত কাশ্মীরে সক্রিয় জঙ্গী ঘাঁটিগুলি, সীমান্তে জারি সতর্কতা

0

Last Updated on

স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে জারি হাই অ্যালার্ট | ভারতের গোয়েন্দাদের কাছে আসা খবর অনুযায়ী মুম্বই হামলার মত জলপথকেই বেছে নিতে পারে ভারতে অনুপ্রবেশের পথ হিসেবে জঙ্গীরা | গোপন সূত্রে খবর পেয়ে উপকূলবর্তী অঞ্চলের নিরাপত্তারক্ষীদের সতর্ক থাকতে নির্দেশ দিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক | অন্যদিকে কাশ্মীর নিয়ে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে বাড়তে থাকা উত্তেজনায় পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বক্তব্য পাকিস্তানে খানিক ঝিমিয়ে থাকা সন্ত্রাসবাদকে অনেকটাই চাঙ্গা করেছে বলে গোয়েন্দা সূত্রের খবর | পাকিস্তানের আন্তর্জাতিক সীমানা বরাবর যে জঙ্গী ক্যাম্পগুলি ছিল সেই গুলিকে সক্রিয় করার কাজ শুরু হয়েছে | ইমরান সংসদে দাঁড়িয়ে বলেছিলেন, ভারতের কাশ্মীর সিদ্ধান্তের পর তিনি নিশ্চিত পুলওয়ামার মত ঘটনা আরও ঘটতে পারে | সেক্ষেত্রে পাকিস্তানের কোন হাত থাকবে না বলেই মত তাঁর |

ভারতীয় গোয়েন্দাদের মতে তারপরই পাক অধীকৃত কাশ্মীরে জঙ্গী আনাগোনা বেড়ে গিয়েছে | লস্কর-ই-তৈবা বা জঈশ-ই-মহম্মদের মত জঙ্গী সংগঠনগুলি কোটলি, মুজাফ্ফারাবাদ, রাওয়ালকোট,বাগের মত জায়গায় জঙ্গী ঘাঁটিগুলিতে এনেক সংখ্যক জঙ্গীরা থাকতে শুরু করেছে | ভারতীয় সেনাবাহিনীর নজরে জৈঈশ -এর প্রতিষ্ঠাতা মাসুদ আজহারের ভাই ইব্রাহিম আতহারকেও পাক অধীকৃত কাশ্মীরে আনাগোনা করতে নজরে পড়েছে ভারতীয় সেনার |

সীমান্ত বরাবর সেনা বাহিনীর জওয়ানদের এই বিষয়ে সতর্কতা জারির পাশাপাশি জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা একটি বৈঠক করেন | পাক অধীকৃত কাশ্মীরের জঙ্গী ঘাঁটি গুলিতে কমপক্ষে ১৫০জন জঙ্গীর জমায়েত হয়েছে বলে খবর | স্বাধীনতা দিবসের আগে বা পড়ে কোন রকম নাশকতার ছক কষতে পারে পাকিস্তান | বিশেষ করে কাশ্মীর ইস্যুতে যেভাবে কট্টরপন্থী ধর্মীয় সংগঠন এটিকে পাকিস্তানের হার হিসেবে দেখিয়ে ধর্মীয় উস্কানি মূলক কথা বলছে ,তাতে বড়সড় হামলার ছক যে কষছে পাকিস্তানের জঙ্গী সংগঠনগুলি তা নিয়ে একপ্রকার নিশ্চিত ভারতীয় গোয়েন্দারা |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here