পুলওয়ামা-২ ঘটানোর ষড়যন্ত্রে সামিল মোহাম্মদ ইসমাইল আলভী, মাসুদ আজহারের ঘনিষ্ঠ আত্মীয়

0
Masood Azhar's close relative in ​​the conspiracy to cause Pulwama-2

Last Updated on

গত সপ্তাহে পুলওয়ামার আয়নাগুন্ডে বিস্ফোরকভর্তি গাড়ি নিয়ে গতবছরের পুলওয়ামার মতো সন্ত্রাসবাদী হামলা চালানোর চেষ্টা ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনী কর্তৃক ব্যর্থ হয়। এই ঘটনার প্রাথমিক তদন্তে এখন জানা গেছে যে মোহাম্মদ ইসমাইল আলভী ওরফে লম্বু এই হামলার মাস্টারমাইন্ড । তদন্তে সন্ত্রাসবাদী ইসমাইল সম্পর্কে একটি বড় তথ্য প্রকাশ হয়েছে। ঘটনার তদন্তে জড়িত সন্ত্রাসবিরোধী দুই কর্মকর্তা বলেছেন যে ইসমাইল জয়শ-ই-মোহাম্মদ (জেএম) প্রধান মাওলানা মাসুদ আজহারের ঘনিষ্ঠ আত্মীয়। উল্লেখ্য যে, ১৪ ই ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ এ পুলওয়ামায় হামলায় ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ান শহীদ হয় এবং এই হামলা চালাতে মাসুদ আহজার মূল ভূমিকা পালন করেছিল ।

আরো পড়ুন :আরবিআইএর প্রাক্তন গভর্নরের মতে করোনা প্রভাবিত অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে সঠিক পদক্ষেপ মোদী সরকারের

সূত্রের খবর শিগগিরই জাতীয় তদন্ত সংস্থা (এনআইএ) এই মামলার তদন্তের দায়িত্ব নেবে। গত বছর পুলওয়ামা হামলার ঘটনার পর থেকেই তদন্তকারী দলগুলি ইসমাইল লম্বুকে গ্রেফতার করার জন্য উঠে পড়ে লেগে আছে ।

এর মধ্যে একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন যে লম্বু ইসমাইল ভাই নামে পরিচিত। এটি ছাড়াও তাকে মনিকার ফৌজি বাবাও বলা হয়। তিনি ২০১৮ সালের শেষে ভারতে এসে মুদাসাসির খান, খালিদ এবং মোহাম্মদ ওমর ফারুককে (এক বছরের পরে একটি এনকাউন্টারে নিহত গত বছরের পুলওয়ামার হামলায় জড়িত ষড়যন্ত্রকারী) উপত্যকায় পাথর কাটা থেকে জিলাটিন স্টিক ও স্থানীয় দোকান থেকে অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট সহ বিস্ফোরক উপাদান সংগ্রহ করতে সহায়তা করেছিল ।

ভারতীয় সেনাবাহিনী কারা মুফতী ইয়াসিরকে নিকেশ করার পরে জানুয়ারিতে সে কাশ্মীরে জাইশের লাগাম হাতে নেয়। সূত্রের খবর ইসমাইল একজন আইইডি বিশেষজ্ঞ এবং ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ সালে পুলওয়ামার হামলার জন্য মারুতি ইকো ভ্যানে হামলাকারীদের বোমা লাগাতে সহায়তা করেছিল। ইসমাইলের ডেপুটি সমীর আহমেদ দারও গত বছরের আত্মঘাতী বোমা হামলায় জড়িত ছিল ।

আরো পড়ুন :মুম্বই থেকে জাল টেলিফোন এক্সচেঞ্জ পাকিস্তানে পাচার করছিলো তথ্য,এক পাক গুপ্তচর গ্রেফতার

ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা ইঙ্গিত করেছেন যে ২৮ শে মে গাড়িতেই ব্যবহৃত বোমাটি আরডিএক্স, অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট এবং নাইট্রোগ্লিসারিন দিয়ে তৈরি হয়েছিল। এটি তৈরি করতে একই জিনিস ব্যবহার করা হয়েছিল, যা ২০১৯ এর পুলওয়ামা বোমা বিস্ফোরণে ব্যবহৃত হয়েছিল। ঘটনার তদন্তকারী দলের মতে দুটি ঘটনার মিল জইশ-ই-মোহাম্মদের জড়িত থাকার স্পষ্ট ইঙ্গিত দেয়। যদিও হিজবুল মুজাহিদিন এবং লস্কর-ই-তৈয়বাও গত সপ্তাহে এই বিস্ফোরণে জড়িত বলে মনে হয় কারণ এই সমস্ত সংস্থা পাকিস্তান সেনাবাহিনীর চাপে বড় ধরনের সন্ত্রাসবাদী আক্রমণের পরিকল্পনা করে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here