কাশ্মীর : ফিরে দেখা (পর্ব-১২)

0
Kashmir

Last Updated on

শিবাজী প্রতিম

১৯৪৮য়ের শুরুর দিকে নবনির্মীত ভারত রাষ্ট্র রাষ্ট্রপুঞ্জের কাছে কাশ্মীরের ব্যাপারে একটি রেজোলিউশনের আবেদন করে। ২১শে এপ্রিল ইউনাটেড নেশনস কমিশন ফর ইণ্ডিয়া অ্যাণ্ড পাকিস্তান (ইউএনসিআইপি) রেজোলিউশন-৪৭ গঠন করে রাষ্ট্রপুঞ্জ এই বিষয়ে জোর দেয় যে জম্মু কাশ্মীরের অধিবাসীদের মতামতকে সর্বাধিক গুরুত্ব দেওয়ার ব্যাপারে। তৎকালীন প্রধাণমন্ত্রী নেহেরুও এই বিষয়টিতে গুরুত্ব আরোপ করে তবেই জম্মু কাশ্মীরের অন্তর্ভূক্তি করা হবে বলে মত প্রকাশ করেন। যদিও পরবর্তীকালে বাকি সব করদ রাজ্যগুলিরও ভবিষ্যত যতদিন না সুরক্ষিত হচ্ছে ততদিন কোনো গণভোট করানোর ব্যাপারে পিছিয়ে আসেন। জানুয়ারি ৫, ১৯৪৯য়ে রাষ্ট্রপুঞ্জ ফের একবার নিরপেক্ষ এবং অবাধ গণভোট করানোর প্রসঙ্গ তোলে এবং ভারত ও পাকিস্তান উভয়েই নিজ নিজ বাহিনী কাশ্মীরের মাটি থেকে সরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে সম্মত হয়, যদিও পরবর্তীকালে মতভেদের ফলে তা আর কখনোই সম্ভব হয়ে ওঠেনি। ১৯৪৮য়ের শেষের দিকে যুদ্ধবিরতি ঘোষিত হয় দুদেশের মধ্যে। কিন্তু সৈন্যবাহিনী না সরানোর ফলে কোনোদিনই কাশ্মীরকে কেন্দ্র করে দুদেশের সম্পর্কের উন্নতি হয়নি। পরবর্তীকালে এই অঞ্চলকে ঘিরেই দুদেশের যাবতীয় দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আবর্তীত হয়েছে যার ফলশ্রুতিস্বরুপ তিন তিনটে যুদ্ধে দুদেশের সেনা অংশগ্রহণ করেছে যথাক্রমে ১৯৬৫, ১৯৭১ এবং ১৯৯৯ সালে। কাশ্মীর সমস্যার সমাধাণ আজও অধরা। কবে এই সমস্যার পুরোপুরি শান্তিপূর্ণ সমাধান হবে কেও জানেনা।

(শেষ)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here