অযোধ্যার রেশ কাটতে না কাটতেই এবার ‘কৃষ্ণ জন্মভূমি’ পুনরুদ্ধারের উদ্যোগ শুরু মথুরায়

0
Initiatives to restore Krishna Janmabhoomi in Mathura

Last Updated on

‘অযোধ্যা অব ঝাঁকি হ্যায়, মথুরা কাশী বাকি হ্যায়’, বাবরির বিতর্কিত ধাঁচা ধ্বংসের পর এরকমই ছিল করসেবকদের স্লোগান। অযোধ্যায় রামমন্দির নির্মাণের ছাড়পত্র অনেকদিন অাগেই দিয়েছে সর্বোচ্চ অাদালত। দিনক্ষণ মেনে গতকাল ৫ই অাগস্ট ভূমিপূজনও অনুষ্ঠিত হল ধুমধাম করে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন মোদী, যোগীসহ সংঘের তাবড় নেতারা। অার তার রেশ কাটতে বা কাটতেই মথুরায় শ্রীকৃষ্ণের জন্মভূমি বলে খ্যাত মন্দির পুনরুদ্ধারের তোড়জোড় শুরু করলেন কয়েকজন। সূত্রের খবর গত ২৩য়ে জুলাই সরকারি রেজিস্ট্রেশন পেয়েছে এই অান্দোলনের পুরোধা ‘শ্রী কৃষ্ণ জন্মভূমি ন্যাস’ ।

আরো পড়ুন :রাম মন্দিরের ভিত্তি স্থাপনের আকাঙ্ক্ষায় ২৮ বছর ধরে অন্নগ্রহণ করেননি ৮১ বছরের উর্মিলাদেবী

ইতিমধ্যেই ১৪টি রাজ্যের প্রায় ৮০ জন সাধুসন্তকে নিয়ে গঠিত হয়েছে এই ন্যাস। ন্যাসের সদস্যরূপে বৃন্দাবনের ১১ জন সাধু রয়েছেন বলেও জানা গেছে। ন্যাসের সভাপতি অাচার্য দেবমুরারী বাপু জানিয়েছেন, খুব শিগগিরই তারা গোটা দেশজুড়ে গণস্বাক্ষর অভিযানের মাধ্যমে ‘কৃষ্ণ জন্মভূমি অান্দোলন’ শুরু করবেন বলে। ইতিমধ্যেই তার কাজ অনেকখানি এগিয়ে গেছে বলেও সাংবাদিকদের জানিয়েছেন তিনি। স্বাক্ষর সংগ্রহের পর গোটা দেশজুড়ে অান্দোলনও শুরু করা হবে বলে মত, প্রবীণ এই সাধু মহারাজের। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, রাম জন্মভূমি অান্দোলনের সময় থেকেই শোনা যেত মথুরা এবং কাশীর কথা। মথুরায় মূলত কৃষ্ণ জন্মভূমির সংলগ্ন শাহী ইদগাহ এবং বারাণসীর বিশ্বনাথের মন্দির সংলগ্ন এলাকায় অবস্থিত জ্ঞানবাপী মসজিদকে ঘিরেই রয়েছে বিতর্ক। অার সেসব থেকে হিন্দু মন্দিরগুলোকে মুক্ত করানো থেকেই ছিল সংঘ পরিবারের লক্ষ্য ।

আরো পড়ুন :পন্ডিতদের ছাড়া অসম্পূর্ণ কাশ্মীর, সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিদের দিয়ে তদন্ত হোক তাঁদের কাশ্মীর ত্যাগের: ফারুক আবদুল্লাহ

তবে মথুরায় এই ন্যাস স্থাপনকে ঘিরে সংঘের প্রতিক্রিয়া এখনও কিছু পাওয়া যায়নি বলেই খবর। যদিও অনেকে মনে করছেন বকলমে সংঘই রয়েছে এসবের পিছনে। সূত্রের খবর মথুরার মন্দিরের পাশের ইদগাহ সংলগ্ন প্রায় সাড়ে চার একর জমি মন্দিরের নিজস্ব বলে ইতিমধ্যেই দাবী করেছে কৃষ্ণ জন্মভূমি ন্যাস। অার সেই জমি পুনরুদ্ধার করা গেলে সেখানে একটি রঙ্গমঞ্চ বানানো হবে বলে মত তাদের৷ যদিও তা কিভাবে বা কবে হবে সে বিষয় এখনও অনিশ্চিত ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here