এনকাউণ্টার : বাণিজ্যনগরীর দীর্ঘ কয়েকদশকের অপরাধজগতের কাহিনী: (পর্ব-১)

1
Mumbai

Last Updated on

শিবাজী প্রতিম

মুম্বই, মাত্র সাতটি দ্বীপ থেকে ব্রিটিশ ভারতের অন্যতম প্রধান বন্দর এবং তারপর ধীরে ধীরে বাণিজ্যনগরী থেকে ভারতের আর্থিক রাজধানী হয়ে ওঠা। সময়টা মোটেও খুব একটা কম নয়। সময়ে সময়ে মানুষের চরিত্র যেমন পাল্টায় সেরকমই পাল্টায় একটি শহরেরও চরিত্র। এই প্রবন্ধে স্বাধীনতার পর দেশের আর্থিক রাজধানী দীর্ঘ চার দশক ধরে চলা অপরাধ জগতের সামান্য নথি মাত্র।

আরও পড়ুন:https://risingbengal.in/niyamito-neel-chhobir-asati-dampatya-jibane-deke-ante-pare-sarbonash/

তখন দেশ সবে স্বাধীন হয়েছে। বকলমে দেশের রাজধানী দিল্লী হলেও সমস্ত কেন্দ্রীয় সরকারি অফিসসহ দেশের তাবড় আর্থিক প্রতিষ্ঠান সবই তখন পুরোনো ব্রিটিশ ভারতের রাজধানী শহর কলকাতায়। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল বড় বড় বিদেশী কোম্পানির সদর দফতর পর্যন্ত। স্বাধীনতার পরের দশকটি ঠিক মত চললেও তার ঠিক পরের দশকেই উত্তাল ঝড়ের মত শহর কলকাতার উপর আছড়ে পড়ল ‘বন্দুকের নলই ক্ষমতার উৎস’ স্লোগানকে সামনে রেখে নকশাল আন্দোলনের দমকা হাওয়া। সে সাথে জঙ্গি ট্রেড ইউনিয়নিজম। তার ফলে তখন থেকেই বড় বড় দেশী, বিদেশী বেসরকারী সংস্থাগুলি দেখতে শুরু করলো সিঁদুরে মেঘ। তারা পাততাড়ি গোটাতে শুরু করলো তখনই ঘেরাওকে বেআইনি না বলতে শেখানো এই ‘নেতি’র শহর থেকে।

আরও পড়ুন:https://risingbengal.in/sohorer-dompotider-pre-wedding-photoshoot-er-jonyo-gontobyo-college-street/


একদিকে ঔপনিবেশিক যুগের সময় থেকেই দেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সমুদ্রবন্দর যার সাথে যোগাযোগ রাখা যায় মধ্যপ্রাচ্য পার হয়ে সুদূর ইউরোপ এমনকি আমেরিকা পর্যন্ত অন্যদিকে বিশাল এই পুঁজির নিবেশ দুইয়ে মিলে মুম্বই শহর যার সম্পর্কে বলা হয় ‘The City that never sleeps’ তার তো একেবারে তখন পোয়াবারো। ঠিক সেইসময় থেকেই এই শহর বাণিজ্যনগরী থেকে ক্রমে দেশের আর্থিক রাজধানী হওয়াপ স্বপ্ন দেখতে এবং দেখাতে শুরু করে।
এটা তো গেল শহরের ভালো দিক তবে শহরের অন্ধকার জগত বলে কি কিছু ছিল না ?
সেই জগতেরও বিবর্তন শুরু হয়।

(চলবে)

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here