দাউদ-গড় ডোংরিতে বহুতল ভেঙে কমপক্ষে ৪০জন চাপা পড়ার আশঙ্কা

0

Last Updated on

২৫ সি কেশরবাগ | মুম্বইয়ের অপরাধের অন্যতম আঁতুড়ঘর ডোংরিতেই বহুতল ধসে তাতে চাপা পড়েছিলেন আশপাশের ৪০-৫০জন মানুষ | সংখ্যাটা আনুমানিক | সকালের এই ভযাবহ দুর্ঘটনার পর থেকে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা দলের সদস্য,পুলিশ, দমকল আধিকারিক সবাই মিলে শেষ পাওয়া খবর অবধি মাত্র ১৯ জনকে উদ্ধার করতে পেরেছেন | যাদের মধ্যে ৯ জনকে ইতিমধ্যেই মৃত বলে ঘোষণা করা হয়েছে | আর ১০জনকে গুরুতর আহত অবস্থায় ভর্তি করা হয়েছে |

দুর্ঘটটাকে রাজনীতির দৃষ্টি ভঙ্গীতে দেখার সংস্কৃতি এদেশের | তাই সেখান থেকে মোটেই বাদ যায়নি মঙ্গলবারের এই দুর্ঘটনাটি | কংগ্রেস সরকার এর জন্য দায়ী করেন সরকারকে | সঙ্গে দায় চাপনো হয় বিএমসি ও মহারাষ্ট্র ডেভলপমেন্ট অথরিটিকেও | সঠিক রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে এই ধরনের ঘটনা ঘটেছে বলে তাদের বক্তব্য |
যদিও দুর্ঘটনার পর্থম থেকেই বিএমসির পক্ষ থেকে জানানো হয় ,২০১৭সালে বাড়িটি বিপজ্জনক তকমা লাগিয়ে খালি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল | সকালে এই তথ্যের পর বিকেলে এমডিএ-র পক্ষ থেকে বলা হয় যে কেশরবাগের যে বাড়ি ভেঙে মানুষ চাপা পড়ার কথা বলা হচ্ছে আদতে সেই বাড়ির বাসিন্দা তারা নন | ওই বাড়িটির পিছনে আর একটি বেআইনি বাড়ি তৈরি হচ্ছিল | তারই অংশ ভেঙে এই বিপত্তি বলে জানানো হয় |

তবে ঘটনা যাই হোক না কেন প্রশ্ন উঠছে সেই অবৈধ বাড়ি বন্ধের দায়ও পৌরবিভাগের | তাই সরকারি বিভাগুলি তাদের দায়ভার সুকৌশলে এড়িয়ে গেলেও এতগুলো স্বজন হারনো মানুষের কান্না যেন সে কথাই বলে চলেছে |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here