সোশ্যাল মিডিয়ায় ফাঁস হওয়া চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে আর্টিক্যাল ৩৫এ বাতিলের ভূত দেখছে কাশ্মীরের কট্টরপন্থীরা

1

Last Updated on

জম্মু-কাশ্মীরের আর্টিক্যাল ৩৫এ বাতিল করার মত যুগান্তকারী কোন পদক্ষেপ নিতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার ? সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া একটি চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে আলোড়িত উপত্যকা | চিঠিটিতে উপত্যকার পাঁচটি ডিভিশনের এসপিদের জানাতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তাদের এলাকার মধ্যে কতগুলি মসজিদ রয়েছে ? সেই মসজিদের পরিচলন কমিটিতে কারা রয়েছেন? এই সম্পর্কিত তথ্য অতি দ্রুত উচ্চআধিকারিকের কাছে জমা দিতে বলা হয়েছে | প্রেরক সিনিয়র সুপারিটেনডেন্ট অফ পুলিশ | নোটিশটি পাঠানো হয়েছে রবিবার রাত ৮.৩৮মিনিটে |

নোটিশের বিষয় ভাইরাল হতেই উত্তেজনা বাড়তে থাকে | তার আগেই উপত্যকায় ফোর্স বাড়ানো হচ্ছে বলে কয়েকদিন আগেই গুজব রটে | যার সংখ্যা প্রায় ১০হাজারের মত বলে জানা যায় | যার সত্যতা থাকলেও তা জঙ্গী মোকাবিলার পাল্টা আঘাত জোরদার করার জন্যই আনা হয়েছে বলে সূত্রের খবর | সেই পরিস্থিতিতে এই নোটিশের পিছনে স্বাভাবিকভাবেই আর্টিক্যাল ৩৫এ শিথিল করার কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্দেশ্য রয়েছে কিনা তা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়ে যায় সাধারণের মধ্যে |

এই জল্পনা উস্কে দিয়েছে শনিবার আরপিএফের তরফে দেওয়া আরেকটি চিঠির মাধ্যমে | বাডগামে কর্মরত আরপিএফ জওয়ানদের আগামী চারমাসের রেশন মজুতের নির্দেশ দেওয়া হয় নোটিশটিতে | সেই চিঠিতেই আশঙ্কা করা হয় আগামীতে উপত্যকায় দীর্ঘ সময়ের জন্য পরিস্থিতি খারাপ হওয়ার | ২৭শ জুলাই নিরাপত্তা বিষয়ক যে বৈঠক হয়েছে তারই পরিপ্রেক্ষিতে এই চিঠি অ্যাসিস্টেন্ট সিকিউরিটি কমিশনার সুদেশ নিউগাল বাডগামে পাঠান বলে জানা যায় |

যদিও উপরের সব সম্ভাবনা নিয়ে সাংবাদিকেরা প্রশ্ন করেন রাজ্যপালে প্রধান উপদেষ্টা বিজয় কুমারকে | তিনি বলেন,সোশ্যাল মিডিয়ায় কি ভাইরাল হয়েছে তার উপর কোন মন্তব্য করা ঠিক নয় | সোশ্যাল মিডিয়ায় চাউর হওয়া জল্পনার উৎস জানতে চেয়ে বলেন কোথা থেকে এই গুজব রটেছে ? এই নিয়ে নির্দিষ্ট অথরিটি আছে যারা জানাবেন এ বিষয়ে | তবে নিরাপত্তা রক্ষী বাড়ানো হয়েছে উপত্যকাকে আরও সুরক্ষিত রাখতে | এর সঙ্গে অন্য কিছুর সম্পর্ক নেই বলে দাবি করেন রাজ্যপালের প্রধান উপদেষ্টা |

প্রসঙ্গত নেহেরু ও শেখ আবদুল্লার মধ্যে হওয়া বিতর্কিত দিল্লি চুক্তি অনুযায়ী ভারতীয় সংবিধানের বাইরে গিয়েও জম্মু-কাশ্মীরের প্রশাসকদের হাতেই তাদের রাজ্যের নাগরিক হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া ও রাজ্যে সবরকম সুযোগ-সুবিধাতে অগ্রাধিকার দেওয়ার এই বিশেষ ক্ষমতার কথাই বলে আর্টিক্যাল ৩৫এ | যদিও অখন্ড ভারতের ক্ষেত্রে এই আর্টিক্যাল ৩৫এ কে চ্যালেঞ্জ করে আগেই সুপ্রিম কোর্টে মামলা হয়েছে, তবে তা কেন্দ্র নতুন করে বলবৎ করার চেষ্টা করলে উপত্যকা যে পাক মদতে আরও অশান্ত হয়ে উঠবে তা বোধহয় অজানা নয় কারেরই |

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here