প্রথমবার প্রজাতন্ত্র দিবসের ফ্লাইপাস্টে কেরামতি দেখাবে সন্ত্রাসীদের যম অ্যাপাচে ও চিনুক

0
Apache AH 64 and Chinook will Participate at 70th Republic Day Flypast

Last Updated on

দেশে ৭০ তম প্রজাতন্ত্র দিবস উদযাপনের প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। দিল্লির রাজপথে প্রতিবারের মতো এবারও একটি দুর্দান্ত প্যারেডের আয়োজন করা হবে, যার মাধ্যমে ভারত বিশ্বের দরবারে নিজের শক্তি প্রদর্শন করবে । এই অনুষ্ঠানে ভারতীয় বায়ুসেনার মোট ৪১ টি বিমান অংশ নেবে। যার মধ্যে সবার নজর থাকবে আমেরিকান হেভি লিফ্ট হেলিকপ্টার চিনুক এবং লড়াকু হেলিকপ্টার অ্যাপাচের দিকেই। এই দুটি হেলিকপ্টার আকাশে তাদের বীরত্ব প্রদর্শন করবে। প্রসঙ্গত, ভারতীয় বিমান বাহিনীর ওয়ারেন্ট অফিসার অশোক কুমার বায়ুসেনা বাহিনীর নেতৃত্ব দেবেন। তিনি গত বারো বছর ধরে বায়ুসেনার প্রদর্শনের নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন ।

আরো পড়ুন :আমেরিকা ও ইরানের ক্রমবর্ধমান উত্তেজনায় উপসাগরীয় অঞ্চলে মোতায়েন ভারতীয় যুদ্ধজাহাজ

এর বাইরে বায়ুসেনার রাফায়েল যুদ্ধবিমান, স্বদেশী ফাইটার এয়ারক্রাফ্ট এলসিএ তেজস, স্বদেশী লাইট কমব্যাট হেলিকপ্টার, আকাশ অ্যান্টি এয়ারক্রাফ্ট মিসাইল এবং অ্যাস্ট্রা মিসাইল সিস্টেম সহ পাঁচটি মডেল প্রদর্শন করবে। এই বছর প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে অংশ নিতে ১৪৮ সদস্যের ভারতীয় বায়ুসেনার টিমে নির্বাচিত দুই মহিলা কর্মকর্তা হলেন ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট গগনদীপ গিল ও রিমা রায় ।

চিনুক

চিনুকের সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য হল গতি। চিনুক প্রথম উড়াল দিয়েছিল ১৯৬২ সালে। এটি একটি মাল্টি মিশন ক্লাসের হেলিকপ্টার। এই চিনুক হেলিকপ্টারে সওয়ার হয়েই আমেরিকান কমান্ডোরা পাকিস্তানে প্রবেশ করে ওসামা বিন লাদেনকে হত্যা করে। চিনুক হ’ল দুটি রোটার সমন্বিত হেভিলিফ্ট হেলিকপ্টার যা ভিয়েতনামের যুদ্ধ থেকে ইরাক পর্যন্ত সর্বত্র ব্যবহৃত ।

চিনুক

ভারত যে চিনুক কিনেছে তার নাম সিএইচ -৪৪ এফ। এটি ৯.৬ টন উত্তোলন করতে পারে, ভারী যন্ত্রপাতি, কামান এমনকি সাঁজোয়া ট্যাঙ্কও বহন করতে সক্ষম ।

চিনুক

বোয়িংয়ের মতে, অ্যাপাচে বিশ্বের সেরা ফাইটার হেলিকপ্টার হিসাবে বিবেচিত । উল্টোদিকে, চিনুক হেলিকপ্টারটি খুব উচ্চ উচ্চতায় উড়তে সক্ষম। চিনুক সহজেই উচ্চ উচ্চতায় বেশি ভারবহনে দড়। মার্কিন সেনা দীর্ঘদিন ধরে অ্যাপাচে এবং চিনুক ব্যবহার করে আসছে। চিনুক ব্যবহারের ক্ষেত্রে ভারত ১৯ তম দেশ এবং অ্যাপাচে ব্যবহারের ক্ষেত্রে ১৬ তম দেশ ।

অ্যাপাচে হেলিকপ্টারটি সন্ত্রাসবাদীদের ‘যম’ হিসেবেই সুখ্যাতি অর্জন করেছে ।
বিশ্বের সবচেয়ে মারাত্মক অস্ত্রগুলির মধ্যে আটটি অ্যাপাচে অ্যাটাক হেলিকপ্টার ভারতীয় বিমানবাহিনীতে সেবারত রয়েছে। ভবিষ্যতে এ জাতীয় মোট ২২ টি হেলিকপ্টার ভারতীয় বিমানবাহিনীতে যোগ দেবে। আমেরিকান এরোস্পেস সংস্থা বোয়িং এই এএইচ -৬৪ই অ্যাপাচে হেলিকপ্টারটি তৈরি করেছে ।

অ্যাপাচে

চার বছর আগে, অর্থাৎ ২০১৫ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ২২ টি অ্যাপাচে হেলিকপ্টার নিয়ে ভারতের চুক্তি সাক্ষরিত হয়। ২২ অ্যাপাচে হেলিকপ্টার ২০২২ সালের মধ্যে বায়ুসেনার বিমানবহরে যোগ দেবে। ভারত ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে মার্কিন সংস্থা বোয়িংয়ের সঙ্গে অ্যাপাচে কেনার চুক্তিটি করে। এই চুক্তির মোট পরিমাণ ৯৬০০ কোটি টাকা ।

অ্যাপাচে

এএইচ-৬৪ ই অ্যাপাচে বিশ্বের অন্যতম উন্নত যুদ্ধের হেলিকপ্টার যা মার্কিন সেনাবাহিনী ব্যবহার করে। এটি অত্যন্ত নিম্ন উচ্চতা থেকে বায়ু এবং স্থল আক্রমণ করতে সক্ষম। ভারতীয় বিমানবাহিনীর উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মতে ভবিষ্যতের প্রয়োজনের কথা মাথায় রেখে অ্যাপাচে বায়ুসেনার শক্তি বাড়াবে। কারণ এতে ভবিষ্যতের উপযুক্ত বদল করা হয়েছে।

অ্যাপাচে

অ্যাপাচে হেলফায়ার এবং স্ট্রিংগার মিসাইল দিয়ে সজ্জিত । অ্যাপাচি অ্যাটাক হেলিকপ্টারটিতে ১৬ টি অ্যান্টি-ট্যাঙ্ক এজিএম -১১৪ হেলফায়ার এবং স্ট্রিংগার মিসাইল রয়েছে। হেলফায়ার ক্ষেপণাস্ত্রগুলি তাৎক্ষণিকভাবে ট্যাঙ্ক, কামান, বিএমপি যানবাহনের মতো কোনও সাঁজোয়া যানও ধ্বংস করতে পারে। স্ট্রিংগার ক্ষেপণাস্ত্রটি বায়ু থেকে যে কোনও চ্যালেঞ্জের মোকাবিলায় সক্ষম। এটির পাশাপাশি এটিতে একটি হাইড্রা -৭০ আনগাইডেড ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে যা ভূ-পৃষ্ঠের যে কোনও লক্ষ্যকে ধ্বংস করতে পারে।

অ্যাপাচে

এই হেলিকপ্টারকে সহজে শত্রুদের রাডার খুঁজে পেতে অক্ষম । এটি মূলত হেলিকপ্টারটির সেমি-স্টিলথ প্রযুক্তির কারণে এবং কম উচ্চতায় উড়তে সক্ষম হওয়ার কারণে ঘটে। এটিতে অত্যাধুনিক ল্যাঙ্গবো রাডার রয়েছে যাতে এটি নৌবাহিনীর পক্ষেও সহায়ক হবে ।

অ্যাপাচে

অ্যাপাচে মাল্টি রোল ফাইটার হেলিকপ্টার রাতেও আক্রমণে সক্ষম। এটি লেজার, ইনফ্রারেড এবং নাইট ভিশন সিস্টেমগুলিতে সজ্জিত, যাতে এটি অন্ধকারেও শত্রুদের সমস্ত কাজ করতে পারে। এয়ার ফোর্স ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে মার্কিন সরকার এবং বোয়িংয়ের সঙ্গে হওয়া বহু মিলিয়ন ডলারের চুক্তির ছাড়াও অতিরিক্তভাবে, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ২০১৭ সালে ৪১৬৮ কোটি টাকা মূল্যের বিভিন্ন অস্ত্রসজ্জিত ছয়টি হেলিকপ্টার কেনার অনুমোদন দিয়েছে ।

আরো পড়ুন :মোবাইল ,ল্যাপটপ,যানবাহনের মত সাধারণ তথ্য জানতেই এপ্রিল থেকে শুরু জনগণনা ২০২১,চলবে এনপিআরের কাজও

বোয়িং সারা বিশ্বে ২২০০ টিরও বেশি অ্যাপাচে হেলিকপ্টার সরবরাহ করেছে এবং ভারত ষোলতম দেশ হিসেবেই বায়ুসেনার জন্য একে বেছে নিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র ছাড়াও ব্রিটেন, ইজরায়েল, নেদারল্যান্ডস, সৌদি আরব, জাপান এবং মিশরের বিমান বাহিনীও এগুলি ব্যবহার করে। এএইচ-৬৪ ই অ্যাপাচি জুলাই ২০১৮সালে ভারতীয় বিমানবাহিনীর দ্বারা প্রথম সফল উড়ান সংপন্ন করে । প্রথম বায়ুসেনা দলটি ২০১৮ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এই হেলিকপ্টার দিয়ে প্রশিক্ষণ শুরু করেছিল ।

ছবি সৌজন্য: টুইটার

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here